শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

East Bengal: ছন্নছাড়া ফুটবল, নবাগত ফেলিসিওর গোলেও হার বাঁচল না ইস্টবেঙ্গলের

Sampurna Chakraborty | ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৯ : ৪৩


ইস্টবেঙ্গল - ( নন্দকুমার, ফেলিসিও)

নর্থ ইস্ট ইউনাইটেড - (জুরিচ-২, নেস্টর)

আজকাল ওয়েবডেস্ক: তিন গোল হজম করে দু"গোল শোধ। কিন্তু শেষরক্ষা হল না। শনিবার গুয়াহাটির রাজীব গান্ধী স্টেডিয়ামে নর্থ ইস্ট ইউনাইটেডের কাছে ২-৩ গোলে হার ইস্টবেঙ্গলের। প্রথমার্ধে ০-২ গোলে পিছিয়ে পড়েও ম্যাচে ফেরার আপ্রাণ চেষ্টা করেন ক্লেইটনরা। বিপক্ষ গোলকিপার মিরশাদ পুরোনো দলকে জোড়া গোল উপহার দেন। ভারতে পা রেখেই লাল হলুদ জার্সিতে অভিষেকে গোল পান ফেলিসিও ব্রাউন ফোর্বস। প্রথমে তিন বিদেশিকে নিয়ে শুরু করলেও দ্বিতীয়ার্ধের মাঝামাঝি দুই নবাগত বিদেশিকে নামিয়ে দেন কুয়াদ্রাত। ইস্টবেঙ্গলের জার্সিতে অভিষেক হয় মেসির সতীর্থ ভিক্টর ভাসকুয়েজের। কিন্তু বছরের প্রথম হার এড়াতে পারেনি ইস্টবেঙ্গল। নর্থ ইস্টের হয়ে জোড়া গোল টমি জুরিচের। অন্য গোলটি নেস্টরের। ১১ ম্যাচে অপরাজিত থাকার পর হারের মুখ দেখল ইস্টবেঙ্গল। ১২ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ন"নম্বরে লাল হলুদ। 

প্রথমার্ধ পুরোপুরি নর্থ ইস্টের। যেন যুবভারতীতে পাঁচ গোলের বদলার জন্য তেড়েফুঁড়ে শুরু করে তাঁরা। প্রথম ৪৫ মিনিট দাপুটে ফুটবল। ধারেকাছেই ছিল না ইস্টবেঙ্গল। সুপার কাপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর ডার্বিতে যথেষ্ট ভাল ফুটবল খেলে কার্লেস কুয়াদ্রাতের দল। কিন্তু এদিন ছন্দপতন। শুরুতে গোল হজম করায় বেকায়দায় পড়ে যায়। রক্ষণের ভুলে ম্যাচের ৫ মিনিটে পিছিয়ে পড়ে ইস্টবেঙ্গল। জিতেনের পাস থেকে নেস্টরের মাপা মাইনাস। ডান পায়ের টোকায় গোলে রাখেন জুরিচ। অপ্রত্যাশিত গোল। শুরুতে ঝড় তোলে নর্থ ইস্ট। ১১ মিনিটে গোল লক্ষ্য করে ফের শট নেন জুরিচ। সামনে একা অস্ট্রেলিয়ান স্ট্রাইকারকে রেখে দল সাজান নর্থ ইস্ট কোচ। ম্যাচের ১৫ মিনিটে ২-০। ডানদিক থেকে রিডিমের নিখুঁত মাইনাস। তেকাঠিতে রাখতে ভুল করেননি নেস্টর। দুই উইংয়ে জিতেন এবং রিডিমের গতির সঙ্গে তাল মেলাতে পারেনি লাল হলুদ ফুটবলাররা। সঙ্গে নেস্টর-জুরিচ যুগলবন্দিতে ছারখার ইস্টবেঙ্গল রক্ষণ। দ্বিতীয় গোলের ক্ষেত্রে জায়গায় ছিলেন না হিজাজি।‌ নর্থ ইস্টের তারুণ্যের কাছে হার মানে কুয়াদ্রাতের দল। প্রথম ৩০ মিনিট পুরোপুরি ব্যাকফুটে ছিল সুপার কাপ জয়ীরা। ম্যাচের ১৮ মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ ছিল জুরিচের সামনে। কিন্তু গোলে রাখতে পারেননি। প্রথম ২০ মিনিট বল শুধুমাত্র নর্থ ইস্ট ফুটবলারদের পায়ে ঘোরে। বলই পায়নি ইস্টবেঙ্গলের ফুটবলাররা। সামনে একা দেখার ক্লেইটনকে। মাঝমাঠে নেমে বল পাওয়ার চেষ্টা করেন ব্রাজিলীয় স্ট্রাইকার। দুই উইংয়ে মহেশ, নন্দকুমারকেও নিষ্ক্রিয় দেখায়। বিরতিতে ০-২ গোলে পিছিয়ে ছিল ইস্টবেঙ্গল। 

প্রথমার্ধের শেষে হতাশ দেখায় কুয়াদ্রাতকে। বিরতিতে মাঠে দাঁড়িয়ে হিজাজির সঙ্গে কথা বলেন স্প্যানিশ কোচ। দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করে ইস্টবেঙ্গল। আক্রমণ শানাতে শুরু করেন ক্লেইটন, মহেশরা।‌
ম্যাচের ৪৮ মিনিটে গোলের সুযোগ এসেছিল ইস্টবেঙ্গলের সামনে। কিন্তু ফিস্ট করে বাঁচায় নর্থ ইস্ট গোলকিপার। ম্যাচের ৫৩ মিনিটে ২-১ করেন নন্দকুমার। ক্লেইটনের পাস থেকে তাঁর ডান পায়ের শট বিপক্ষ কিপার মিরশাদের গায়ে লেগে গোলে ঢুকে যায়। গোলকিপারের ভুলের খেসারত দিতে হল নর্থ ইস্টকে। ম্যাচের ৬১ মিনিটে সরাসরি প্রভসুখনের হাতে তুলে দেন জুরিচ। দ্বিতীয়ার্ধে অনেকটা ধরে খেলে ইস্টবেঙ্গল। ব্যবধান কমার পর ম্যাচে সমতা ফেরানোর সুযোগ ছিল। কিন্তু জুরিচের বিশ্বমানের গোলে আবার ব্যবধান বাড়ায় নর্থ ইস্ট। ম্যাচের ৬৭ মিনিটে ৩-১। দুরন্ত গোল টমি জুরিচের। ডিফেন্স থেকে ভেসে আসা একটা লম্বা বল চেস্ট ট্র্যাপ করে নামিয়ে বক্সের কোনাকুনি থেকে ডান পায়ের দূরপাল্লার শটে গোল। অভিষেক ম্যাচেই গোল পান ফেলিসিও। ম্যাচের ৮২ মিনিটে ৩-২ ইস্টবেঙ্গলের। ক্লেইটনের শট তালুবন্দি করতে ব্যর্থ মিরশাদ। ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে ঠিক ফেলিসিওর মাথায় পড়ে। হেডে গোল কোস্টারিকানের। আগের দিন রাতেই গুয়াহাটিতে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন। মাত্র কয়েক ঘন্টায় ব্যবধানে নেমেই গোল পেলেন। কিন্তু বছরের প্রথম হার এড়াতে পারল না ইস্টবেঙ্গল। 



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর

সোশ্যাল মিডিয়া