বুধবার ২৪ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Tollywood: মধ্যরাতে মিমির বাড়িতে হামলা! কী পদক্ষেপ করলেন সাংসদ-নায়িকা?

নিজস্ব সংবাদদাতা | ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৩ : ৩৮


শনিবারের মধ্যরাত। ঘড়ির কাঁটা ১২টা ছুঁইছুঁই। হঠাৎ আলোর ঝলকানি। চাপা গলায় ফিসফাস। কানে যেতেই দরজা খুলে উঁকি দিলেন মিমি চক্রবর্তী! সঙ্গে সঙ্গেই প্রায় লাফিয়ে উঠলেন। নিশ্চয়ই ভয়ে বা আতঙ্কে? কারণ, এত রাতে তাঁর শোওয়ার ঘরের পাশের ঘরে কীভাবে একগাদা লোক ঢুকল? হ্যাঁ, মিমি লাফিয়ে উঠেছিলেন বটে। তবে ভয়ে নয়, আনন্দে! তাঁর বন্ধুরাই তাঁর বাড়িতে। তিনি ঘুণাক্ষরে টের পাননি। কারণ? রবিবার যে তাঁর জন্মদিন।



ক’টা বসন্ত পার করে ফেললেন ‘বোঝে না সে বোঝে না’ নায়িকা? এই কৌতূহল কখনও দেখাতে নেই।

কিন্তু রাতের উদযাপন ঘিরে কী হল, সেই কৌতূহল তো দেখানো যেতেই পারে! মিমি তখন রাতপোশাকে। তাই বন্ধুদের কাছে তাঁর মিনতি, তাঁকে তৈরি হয়ে আসার জন্য কিছুক্ষণ সময় যেন দেওয়া হয়। বলেই মুখের উপরে দরজা বন্ধ! তারপর পায়ে পায়ে হাসিমুখে বেরিয়েই অবাক। আদুরে গলায় বলে ওঠেন, ‘‘সবাই এখানে!’’ সাদা টিশার্ট, হটপ্যান্টে নীলচে-গোলাপি রঙের রামধনু রঙের ছটা। চুল তুলে পনি। মিমি কাছে আসতেই তাঁর মাথায় একের পর এক আলো লাগানো মুকুট। যেন রানির সত্যিকারের মুকুটের মতোই জ্বলজ্বলে। চোখে কালা চশমা!



টেবিলে সাজানো রকমারি কেক। সবাই মোমবাতিকে আগুন দিতেই মিমি একটি করে মোমবাতি নিভিয়েছেন। আর ইচ্ছে জানিয়েছেন মনে মনে। এভাবেই রাতঘড়ির ১২টার কাঁটা পার। জন্মদিনের উল্লাসে সাংসদ-নায়িকার ঘরে তখন যেন শব্দের সুনামি ! তারপর কেক কাটা পর্ব। এদিনের পুরো ঘটনায় নেতৃত্বে ওঁর খুব কাছের বন্ধু অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়। মিমির জন্মদিনের উদযাপন অবশ্য শুক্রবার রাত থেকে শুরু। ওই দিন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় থেকে জিৎ-- কেউ বাদ যাননি। কেবল নুসরৎ জাহান-যশ দাশগুপ্ত ছাড়া। তিন থাকের চকোলেট কেকের বুকে সেদিন ছুরি বসিয়েছিলেন তিনি। মিমি সেই রাতে গাঢ় নীল পোশাকে ঝলমলে। 




বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর

সোশ্যাল মিডিয়া