রবিবার ১৪ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

EXCLUSIVE: পর্দায় ‘ইন্দুবালা’কে দর্শক দেখেছেন, হল ভিজিটে সত্যিকারের সৃজাকে দেখবেন: সৃজা

নিজস্ব সংবাদদাতা | ২১ অক্টোবর ২০২৩ ১২ : ৪১


গত কয়েক মাস তাঁর উপরে ঝড় বয়ে গিয়েছে। প্রথম অভিনয়। তাও আবার নায়িকার ভূমিকায়, পুজোর ছবিতে। দেব অধিকারীর বিপরীতে। অভিনয় শেষের পরে ডাবিং। তারপর প্রচার। সারা কলকাতা ছুটে বেড়িয়েছেন টিমের সঙ্গে। তার মধ্যেই ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের পড়াশোনা, পরীক্ষায় বসা। পঞ্চমীতে মুক্তি পেয়েছে অরুণ রায় পরিচালিত ‘বাঘা যতীন’। যেখানে বিপ্লবী 'যতীন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়' দেব। তাঁর স্ত্রী 'ইন্দুবালা' সৃজা দত্ত। ছবি প্রশংসিত। প্রশংসিত তাঁর অভিনয়। মহা সপ্তমীতে প্রথম দর্শকদের মুখোমুখি তিনি। নন্দন প্রেক্ষাগৃহে। যেতে যেতে ফোনে আজকাল ডট ইনের সঙ্গে ভাগ করে নিলেন নতুন অভিজ্ঞতা। নায়িকাকে প্রশ্ন করার আগেই পাল্টা প্রশ্ন, ‘‘ছবি দেখেছেন? আমায় কেমন লাগল?’’ সবিস্তার শুনে গলায় তৃপ্তির ছোঁয়া। বললেন, ‘‘দৌড়ঝাঁপ করতে করতে হাল্কা ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলাম। নতুন করে উৎসাহিত হলাম।’’ ছবিমুক্তির পরে নায়িকা সাধারণত নায়কের থেকে একটা ফোন আশা করেন, পরিচালকেরও। কী বলছেন দেব, অরুণ? ওঁরাও কি একই ভাবে উৎসাহিত করেছেন? এবার ঝকঝকে উত্তর, ‘‘অবশ্যই। প্রথম ছবি। ভিতরে ভিতরে ভীষণ কেঁপেছি। তারপরেও যা যা দায়িত্ব সব পালন করার চেষ্টা করেছি। ছবিমুক্তির পরে দেবদা, অরুণ স্যর বললেন, 'যা করার সবটাই ঠিকঠাক করেছ। আমরা খুব খুশি।' মনে হল, প্রাণ ফিরে পেলাম।’’ নায়িকার যুক্তি, যাঁরা তাঁর উপরে এতটা ভরসা করেছিলেন তাঁদের ভরসার দাম দিতে পেরেছেন। আপাতত এতেই সন্তুষ্ট তিনি। এবার দর্শকদের সঙ্গে মুখোমুখি হওয়ার পালা। যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ছবিমুক্তির পরেও প্রচার শেষ হয় না। অভিনেতারা এক প্রেক্ষাগৃহ থেকে আর এক প্রেক্ষাগৃহে ছুটে বেড়ান। মুখোমুখি হল দর্শকদের। তাঁদের থেকে সরাসরি ভালমন্দ জানেন। সৃজার এই অভিজ্ঞতা কেমন? পর্দার ‘ইন্দুবালা’ জানালেন, সপ্তমীর সন্ধেয় তাঁর প্রথম হল ভিজিট। বুকটা একটু ঢিপঢিপ করছে। কেমন সেজেছেন তিনি? সঙ্গে সঙ্গে মিষ্টি হেসে জবাব, ‘‘এক জায়গা থেকে ফিরেই আবার বেরোচ্ছি। সাজার সুযোগ পাইনি। আজ ড্রেস পরেছি। পাশ্চাত্য সাজ। চুল খোলা রেখেছি। সঙ্গে সামান্য রূপটান।’’ এই সাজে ‘বাঘা যতীন’ ‘বৌ’কে দেখে দর্শকের চোখ হোঁচট খাবে না তো? সঙ্গে সপ্রতিভ উত্তর, ‘‘পর্দায় সবাই ‘ইন্দুবালা’কে দেখে নিয়েছেন। যিনি এই ভূমিকায় অভিনয় করলেন তাঁকেও তো চিনতে হবে। এবার বাস্তবের সৃজার সঙ্গে পরিচয়ের পালা।’’ দর্শকদের মতো টলিউডও তাঁকে সাদরে বরণ করে নিয়েছে। সৃজার দাবি, তিনি যতজন অভিনেতা-অভিনেত্রী, পরিচালককে চেনেন তাঁদের থেকে ইতিবাচক মন্তব্য শুনেছেন। ছবিমুক্তির দিন প্রিমিয়ার শেষে রুক্মিণী মৈত্র এগিয়ে এসে তাঁকে বলেছেন, ‘‘তুমি উঠবে।’’ সৃজার কাছে এটা অনেক বড় পাওনা। পরের ছবিতে দেবের নায়িকাকে তা হলে কোন নায়কের সঙ্গে দেখা যাবে? শুনেই হেসে ফেলেছেন। জানিয়েছেন, আগে প্রথমটার রেশ কাটুক। তারপর পরের কথা ভাববেন তিনি। একই কথা বলেছেন তাঁর পরিবার। তাঁরাও কন্যাগর্বে গর্বিত। আর পুজোর আনন্দ? প্রথম ছবিতেই তারকার খ্যাতি। খুব ভাল লাগছে সৃজার। আন্তরিকভাবে জানালেন, ‘‘পর্দাজুড়ে দেবদার সঙ্গে আমি। আমার ছবি খবরের কাগজের পাতায়। আমার কথা লোকে পড়ছেন, জানছেন। প্রেক্ষাগৃহের বাইরে কাটআউট, ফ্লেক্স, স্ট্যান্ডিতেও রয়েছি। মণ্ডপে ঘোরা, ফুচকা খাওয়া তো আছেই। এবারের এই অন্যরকম পুজোটা বরং উপভোগ করি?’’
 



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর



রবিবার অনলাইন

সোশ্যাল মিডিয়া