বুধবার ২৪ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Durga Pujo 2023: বেলেঘাটা অগ্রণীর পুজোর থিম 'শ্রেষ্ঠ পিতা'! অনুপ্রেরণায় নন্দিনী ভট্টাচার্য...

Angana Ghosh | ২০ অক্টোবর ২০২৩ ১৫ : ২৫


নিজস্ব সংবাদদাতা: আজ ষষ্ঠী। মায়ের বোধন। শহর জুড়ে নারী শক্তির উদযাপন। উৎসবের সেই আবহে থিমের চাকচিক্য চারপাশে। কোথাও ডিজনিল্যান্ড তো কোথাও সুইজারল্যান্ড। একটু অন্যপথে হাঁটলো বেলেঘাটা অগ্রণী। তাঁদের এ বছরের পুজোর থিম 'শ্রেষ্ঠ পিতা'। অনুপ্রেরণায় নন্দিনী ভট্টাচার্য।  মা দুর্গা! ত্রিশূল বিঁধেছেন অসুরের বুকে। এ যেন নারীর ক্ষমতায়নের এক উজ্জ্বল প্রকাশ। কিন্তু মা দুর্গা এত শক্তি পেলেন কোথায়? তাঁর হাতের অস্ত্র সাজালেন কারা? সেই তো দেবতারাই। সোজা ভাবনায় পুরুষ। তাহলে নারীশক্তি প্রকাশে পুরুষের অবদান তো চিরকালই ছিল। মন্ডপে মা দুর্গার মাথার ওপরেই থাকেন শিব। তাই তো এই মায়ের পুজোর উদযাপন বাবা ছাড়া অসম্ভব।  পুরুষের অধিকার নিয়ে অনেক বছর ধরেই কাজ করে চলেছেন নন্দিনী ভট্টাচার্য। এবার তাঁর ভাবনা, কাজ, উঠে এল পুজোর থিমেও। আজকাল ডট ইন এর পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হলে এই প্রসঙ্গে তিনি জানালেন, ''শক্তি মানেই পুরুষ ও প্র কৃতির সহবস্থান। দুর্গা অসুরের যুদ্ধ আসলে শুভ–অশুভের লড়াই। সেক্ষেত্রে দুর্গা মানেই নারী, আর অসুর মানেই পুরুষ, এমন ভাবে দেগে দেওয়ার কিছু নেই। যেসব পুরুষরা ট্রাফিকিং থেকে মেয়েদের বাঁচাচ্ছেন, বয়স্ক মানুষদের জন্য কাজ করছেন তাঁরা কী দুর্গা নন? আবার অনেক জায়গার যৌন ব্যবসা চালাচ্ছেন নারী। তাঁরা কী অসুর নন? পুরুষতান্ত্রিকতা যেমন একটা কনসেপ্ট, দুর্গাও ঠিক তাই। সেজেগুজে কাশবনে ঘুরলেই দুর্গা হওয়া যায় না । আদি অনন্ত কাল ধরে সংসারে দুর্গারা আছেন। লড়ছেন। তাঁদের কথা কেউ জানতেও পারেন না। তাঁদের কোনও পুরস্কারও জোটে না।''  আজকাল ডট ইন এর পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হয় বেলেঘাটা অগ্রণী ক্লাবের সদস্য তপন কুমার রায়ের সঙ্গেও। তাঁদের পুজোর মন্ডপ সেজেছে সংসারে পুরুষের ভুমিকার নানা পটচিত্র দিয়েই। অফিস থেকে ফিরে ক্লান্ত বাবা সন্তানকে কাঁধে চাপিয়ে নিয়ে বেরিয়েছেন ঠাকুর দেখাতে। কিংবা সন্তানকে পছন্দের খাবার কিনে দিচ্ছেন পিতা। এরকমই টুকরো গল্পে পিতার ভুমিকা ফুটে উঠেছে মন্ডপ সজ্জায়। মা জন্ম দেন, কিন্তু বাবা পরিশ্রম করে সেই সন্তানকে দেন প্রতিষ্ঠা। এই বার্তায় থিমের মূলে।  এই থিম মানুষকে একটু হলেও নাড়া দেবে। নন্দিনীর আশা, আগামীদিনে এরকম অনেক ক্লাবই এগিয়ে আসবেন তাঁর ভাবনাকে রূপদান করতে। কলকাতায় তো অনেক রকমের থিম হয় পুজোয়। তা হলে শ্রেষ্ঠ পিতা কেন নয়? মা দুর্গা, শক্তি রূপেন সংস্থিতা। সেই উচ্চারণে কোথাও যেন নারী পুরুষ বিভেদ নেই এই পুজোয়। আদি অনন্ত কাল ধরে সংসারে দুর্গারা আছেন।  লড়ছেন। তাঁদের কথা কেউ জানতেও পারেন না। তাঁদের কোনও পুরস্কারও জোটে না।''  আজকাল ডট ইন এর পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হয় বেলেঘাটা অগ্রণী ক্লাবের সদস্য তপন কুমার রায়ের সঙ্গেও। তাঁদের পুজোর মন্ডপ সেজেছে সংসারে পুরুষের ভুমিকার নানা পটচিত্র দিয়েই। অফিস থেকে ফিরে ক্লান্ত বাবা সন্তানকে কাঁধে চাপিয়ে নিয়ে বেরিয়েছেন ঠাকুর দেখাতে। কিংবা সন্তানকে পছন্দের খাবার কিনে দিচ্ছেন পিতা। এরকমই টুকরো গল্পে পিতার ভুমিকা ফুটে উঠেছে মন্ডপ সজ্জায়। মা জন্ম দেন, কিন্তু বাবা পরিশ্রম করে সেই সন্তানকে দেন প্রতিষ্ঠা। এই বার্তায় থিমের মূলে।  এই থিম মানুষকে একটু হলেও নাড়া দেবে। নন্দিনীর আশা, আগামীদিনে এরকম অনেক ক্লাবই এগিয়ে আসবেন তাঁর ভাবনাকে রূপদান করতে। কলকাতায় তো অনেক রকমের থিম হয় পুজোয়। তা হলে শ্রেষ্ঠ পিতা কেন নয়? মা দুর্গা, শক্তি রূপেন সংস্থিতা। সেই উচ্চারণে কোথাও যেন নারী পুরুষ বিভেদ নেই এই পুজোয়।



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর

সোশ্যাল মিডিয়া