শনিবার ২০ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Banks: বেসরকারিকরণের জন্য তৈরি ব্যাঙ্কের তালিকা পুনর্বিবেচনা করবে মোদি সরকার

Pallabi Ghosh | ০৪ নভেম্বর ২০২৩ ১২ : ১৫


বীরেন ভট্টাচার্য, দিল্লি: রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাঙ্কগুলির নন পারফর্মিং অ্যাসেটের পরিমাণ কমেছে। বেশ কিছু ব্যাঙ্ক লাভের মুখ দেখতে শুরু করেছে। সেই কারণেই ব্যাঙ্ক বেসরকারিকরণের তালিকা পুনর্বিবেচনা করতে চলেছে মোদি সরকার। যে সমস্ত রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাঙ্ক প্রাথমিকভাবে বেসরকারিকরণের জন্য চিহ্নিত করা হয়েছিল, সেগুলি পুনরায় খতিয়ে দেখা হবে বলে সূত্রের খবর। বেসরকারিকরণের জন্য নতুন করে ব্যাঙ্কের তালিকা তৈরি করবে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রক, নীতি আয়োগ এবং রিজার্ভ ব্যাঙ্কের প্রতিনিধি নিয়ে গঠিত নতুন কমিটি।
ব্যাঙ্কের কত শতাংশ অংশীদারিত্ব ছেড়ে দেওয়া হবে তা স্থির করার পাশাপাশি ব্যঙ্কগুলির অর্থনৈতিক উন্নতি ও অপরিশোধিত ঋণের পরিমাণ কমায়, তাদের কতটা গুরুত্ব দেওয়া হবে, তা স্থির করবে নতুন এই কমিটি। বর্তমানে ভারতে রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাঙ্কের সংখ্যা ১২টি। তারমধ্যে রয়েছে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া, পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্য়াঙ্ক, ব্যাঙ্ক অফ বরোদা, কানাড়া ব্যাঙ্ক, পাঞ্জাব অ্যান্ড সিন্ধ ব্যাঙ্ক, ইন্ডিয়ান ব্যাঙ্ক,ইউনিয়ন ব্যাঙ্ক, ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া, ব্যাঙ্ক অফ মহারাষ্ট্র, সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া, ইন্ডিয়ান ওভারসিজ ব্যাঙ্ক এবং ইউকো ব্যাঙ্ক। গত ৩০ জুন শেষ হওয়া ত্রৈমাসিকের হিসেব অনুযায়ী, এই ব্যাঙ্কগুলির সম্মিলিত লাভের পরিমাণ ৩৪, ৪১৮ কোটি টাকা। গত বছরে এই ত্রৈমাসিকে ব্যাঙ্কগুলির লাভের পরিমাণ ছিল ১৫, ৩০৭ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক বছরে রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাঙ্কগুলির লাভের পরিমাণ দ্বিগুণের বেশি হয়েছে। এছাড়াও ২০১৮ সালে মার্চে রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাঙ্কগুলির এনপিএ এর পরিমাণ ছিল ১৪.৬ শতাংশ। ২০২২ সালের ডিসেম্বরে তা কমে হয়েছে ৫.৫৩ শতাংশ।
এর আগে প্রাথমিকভাবে অপেক্ষাকৃত ছোটো রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাঙ্কগুলি বেসরকারিকরণের পরিকল্পনা করেছিল মোদি সরকার। প্রাথমিকভাবে সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া, ইন্ডিয়ান ওভারসিজ ব্যাঙ্ক এবং ইউকো ব্যাঙ্ক বেসরকারিকরণের তালিকাভুক্ত হয়। তবে বর্তমানে এই ব্যাঙ্কগুলি লাভের মুখ দেখা শুরু করেছে। সূত্রের খবর, ২০২৪-২৫ অর্থবর্ষ বা লোকসভা নির্বাচনের পর্ব মিটে গিয়ে নতুন সরকার গঠনের পর এই বিষয়ে অগ্রগতি হবে। বেসরকারিকরণের জন্য ব্যাঙ্কগুলির নাম স্থির করার পর তা মন্ত্রিসভায় পাঠানো হয়। সেখানে অনুমোদন পেলেই সেই ব্য়াঙ্কের বেসরকারিকরণ হয়। ২০২০ সালের ১ এপ্রিল থেকে এখনও পর্যন্ত মোট ১০টি ব্যাঙ্ক একে অপরের সঙ্গে মিশিয়ে দেওয়া হয়েছে।



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর



রবিবার অনলাইন

সোশ্যাল মিডিয়া