সোমবার ২২ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

India-South Africa: ষষ্ঠ বোলার নিয়ে চিন্তিত নন দ্রাবিড়, ইডেনে হাত ঘোরাতে দেখা যাবে কোহলিকে!

Sampurna Chakraborty | ০৪ নভেম্বর ২০২৩ ১৮ : ৩৭


সম্পূর্ণা চক্রবর্তী: হার্দিক পাণ্ডিয়া ছিটকে যাওয়ায় ষষ্ঠ বোলার নিয়ে সমস্যায় পড়ে গিয়েছে ভারত। স্পেশালিস্ট বোলার বলতে তিন পেসার, দুই স্পিনার। জাদেজা ছাড়া প্রথম একাদশে কোনও অলরাউন্ডার নেই। এদের মধ্যে কেউ ব্যর্থ হলেই কোনও বিকল্প থাকবে না রোহিত শর্মার হাতে। তবে ম্যাচের আগেরদিন সংবাদিক সম্মেলনে এই নিয়ে একটুও চিন্তিত বলে মনে হল না রাহুল দ্রাবিড়কে। হাইভোল্টেজ ম্যাচের আগের দিন যথেষ্ট খোশমেজাজে ছিলেন ভারতের হেড স্যার। তেম্বা বাভুমা দাবি করেন, ভারতের ষষ্ঠ বোলার না থাকার ফায়দা তুলতে চান তাঁরা। তবে এটা শুনেও দ্রাবিড়কে বিশেষ বিচলিত দেখাল না। উল্টে কোহলি প্রসঙ্গ টেনে মশকরা করলেন। দ্রাবিড় বলেন, "বাভুমা বাস্তবটাই বলেছে। আমাদের হয়তো সত্যিই ষষ্ঠ বোলারের বিকল্প নেই। আমাদের কম্বিনেশনে বাড়তি বোলার খেলানোর সুযোগ নেই। তবে একান্তই প্রয়োজন পড়লে আমরা রং ফুটেড ভয়ঙ্কর সুইং বোলারকে ডাকতে পারি। দর্শকরাও ওর বোলিং দেখতে চায়। কয়েকটা ম্যাচে কিছু ওভারের জন্য বিরাটের কথা ভাবছি। আগের ম্যাচেও দর্শকরা চাইছিল কোহলি বল করুক। ওকে প্রায় বল দিয়েই ফেলেছিলাম আমরা। যদিও শেষপর্যন্ত সেটা হয়নি।" বিরাটের পাশাপাশি প্রয়োজনে সূর্যকুমার যাদব, রোহিত শর্মাকে দিয়েও বল করানোর ইঙ্গিত দিলেন দ্রাবিড়। 

শেষ তিন ম্যাচে খেলতে পারেনি হার্দিক। তার আগে অস্ট্রেলিয়া সিরিজেও ছিলেন না। মুম্বই, ইন্দোরে ষষ্ঠ বোলার ছাড়াই যথেষ্ট ভাল খেলেছিল ভারত। উদাহরণস্বরূপ এই প্রসঙ্গ টেনে আনেন ভারতের হেড কোচ। তবে হার্দিকের পরিবর্তে কোনও অলরাউন্ডারের বদলে কেন নেওয়া হল প্রসিদ্ধ কৃষ্ণকে? এর উত্তরে দ্রাবিড় বলেন, "আমার মনে হয় আমাদের কম্বিনেশন অনুযায়ী এটাই সেরা সিদ্ধান্ত। হার্দিককে আর পাওয়া যাবে না। গত তিন ম্যাচে ও ছিল না। অস্ট্রেলিয়া সিরিজেও ওকে পাওয়া যায়নি। আমরা তিন পেসার, দুই স্পিনার নিয়েই খেলছি। আমাদের রিজার্ভে ব্যাটিং বিকল্প রয়েছে, স্পিন অপশন আছে, বোলিং অলরাউন্ডারও রয়েছে। আমরা যে কম্বিনেশনে খেলি তাতে কোনও পেসার অসুস্থ হলে, বা‌ সামান্য চোট পেলে পেস বোলিংয়ে বিকল্প প্রয়োজন। তারমানে এই নয় যে আমরা অন্য কম্বিনেশনে খেলব না। তবে একটা বিকল্প থাকল।" যদিও প্রসিদ্ধ কৃষ্ণর কোনও ম্যাচ খেলার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। এদিন ইডেনেও তাঁকে দেখাও যায়নি। 

শনিবারের ঐচ্ছিক অনুশীলনে বোলারদের বিশ্রাম দেওয়া হয়। ইডেনে দেখা মেলেনি বুমরা, শামি, সিরাজের। ছিলেন না কুলদীপ, অশ্বিনও। শুধু উপস্থিত ছিলেন জাদেজা এবং শার্দূল।‌ তবে অলরাউন্ডার হিসেবে। ব্যাটিং প্র্যাকটিস করতে দেখা যায় দু"জনকেই। ব্যাটারদের মধ্যে সকলেই ছিল। খোশমেজাজে ছিলেন রোহিত। ইডেন ছাড়ার সময় সমর্থকদের উদ্দেশে হাতও নাড়েন। নেটে বেশ অনেক্ষণ ব্যাটিং করতে দেখা যায় কোহলিকে। জোড়া সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে বিরাট। কাল তাঁর ৩৫তম জন্মদিন। তারওপর একদিনের ক্রিকেটে ৪৯তম শতরান করে শচীন তেন্ডুলকারকে ছোঁয়ার হাতছানি। তবে জোড়া মাইলস্টোনের আগের দিনও বিরাট একইরকম, দাবি দ্রাবিড়ের। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, "বিরাট একইরকম। পেশাদার এবং পরিশ্রমী। আচরণে কোনও বদল নেই। আমার মনে হয় না ও ৪৯তম শতরান বা জন্মদিন নিয়ে ভাবছে। ব্যক্তিগত মাইলস্টোন নিয়ে ও চিন্তিত নয়। ওর পাখির চোখ কাপ।"

শনিবার বিকেলের ইডেনে বিরাট কোহলির সঙ্গে সৌরভ গাঙ্গুলির সাক্ষাৎ হয় কিনা সেদিকেই নজর ছিল সবার। দুপুরে দক্ষিণ আফ্রিকার প্র্যাকটিসের সময় মাঠে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন বোর্ড প্রধান। ইডেনের পিচও পর্যবেক্ষণ করেন। কিন্তু ভারতীয় দল স্টেডিয়ামে ঢোকা মাত্রই ইডেন ছাড়েন সৌরভ। ভারতীয় ক্রিকেটের দুই কিংবদন্তির সাক্ষাৎ হয়নি। একদিনের বিশ্বকাপে ইডেনে এখনও পর্যন্ত কোনও ম্যাচ জেতেনি ভারত। ১৯৯৬ সালে শ্রীলঙ্কার কাছে ১২০ রানে ৮ উইকেট হারানোর পর বিনোদ কাম্বলির সেই কান্না এখনও সবার স্মৃতিতে টাটকা। এবার কি সেই গেরো টপকে নতুন ইতিহাস লিখতে পারবে রোহিত শর্মার ভারত? 



বিশেষ খবর

নানান খবর

Earth day 2024 #Aajkaal #EarthDay2024 #EarthDay #aajkaalonline

নানান খবর



রবিবার অনলাইন

সোশ্যাল মিডিয়া