বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Adhir Chowdhury: মুর্শিদাবাদে 'সাগরদিঘি মডেল'-এ ভোট হবে, জানালেন অধীর

Pallabi Ghosh | ০২ এপ্রিল ২০২৪ ১৮ : ২৩


আজকাল ওয়েবডেস্ক: আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে মুর্শিদাবাদ জেলা জুড়ে এবার "সাগরদিঘি মডেল"-এ ভোট হবে। মঙ্গলবার বহরমপুরে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে গিয়ে এই ভাষাতেই "হুঁশিয়ারি" দিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি তথা এবারের লোকসভা নির্বাচনে বহরমপুর কেন্দ্র থেকে কংগ্রেস প্রার্থী অধীর চৌধুরী।
সাংবাদিকদের বলেন, "২০১৯- এর লোকসভা নির্বাচনে তৎকালীন মুর্শিদাবাদ জেলার পুলিশ সুপার মুকেশের নেতৃত্বে ২৬৯টি বুথে রিগিং হয়। ভোটের ঠিক আগের দিন রাতে পুলিশ গিয়ে কংগ্রেস এজেন্টদেরকে ভয় দেখিয়ে রাতারাতি বসিয়ে দিয়েছিল। বর্তমানে যিনি বিজেপির সর্বাধিনায়ক (পড়ুন শুভেন্দু অধিকারী) সেই সময় বহরমপুরে তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বাধিনায়ক ছিলেন। সেদিন পুলিশের তরফ থেকে মিস্টার মুকেশ এবং শুভেন্দু অধিকারী আমাকে হারাতে চেয়েছিলেন। এমনকী আমাকে বিজেপি বানানোর চেষ্টাও হয়েছিল। কিন্তু এত কিছু সত্ত্বেও আমাকে হারাতে পারেননি।"
অধীরবাবু বলেন, "কিন্তু এবছর একতরফাভাবে কিছু করতে পারবেন না। প্রত্যেক মানুষ বুথে যাবেন। যদি কেউ ভোট দিতে না পারেন আমাকে দায়ী করবেন।"
প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীরবাবু হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, "এ বছর মুর্শিদাবাদ জেলা এবং বহরমপুরে "সাগরদিঘি মডেল"-এ ভোট হবে। সাগরদিঘি উপনির্বাচনের আগে জাতীয় নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে আমি সাগরদিঘির মানুষকে কথা দিয়েছিলাম কেন্দ্রীয় বাহিনীর নিরাপত্তায় সকলে অবাধে ভোট দিতে পারবেন। তার ফল কী হয়েছিল সকলেই তা জানেন। জাতীয় নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে এ বছরও আমি একই রকম প্রতিশ্রুতি পেয়েছি। তাই বহরমপুর লোকসভা এবং মুর্শিদাবাদ জেলার সকলের কাছে আমি আবেদন রাখছি ভোটের দিন নির্ভয়ে বুথে গিয়ে ভোট দেবেন। কোনও রকম অসুবিধা হলে আমাকে জানাবেন।"
অন্যদিকে আজ অধীরবাবু জানিয়ে দেন বাম এবং আইএসএফ নেতৃত্ব যদি ডায়মন্ডহারবার কেন্দ্রে প্রার্থী দিতে না পারে তাহলে কংগ্রেসই সেখানে প্রার্থী দেবে। তিনি বলেন, "ওই আসনটি নিয়ে এখনও বাম এবং আইএসএফ নেতারা কথা বলছেন। তাদের তরফে যদি কেউ দাঁড়ান আমাদের কোনও আপত্তি নেই। যদি শূন্য হয় (পড়ুন বাম এবং আইএসএফ প্রার্থী দেওয়া নিয়ে সহমত হতে না পারেন) তাহলে আমরা তো রইলাম।"



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর

সোশ্যাল মিডিয়া