রবিবার ১৪ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Durga Puja: দূষণবিহীন প্রতিমা নিরঞ্জনের জন্য একগুচ্ছ ব্যবস্থা বহরমপুর পুরসভার

Riya Patra | ২৪ অক্টোবর ২০২৩ ১৩ : ৫২


আজকাল ওয়েবডেস্ক: আজ বিজয়া দশমী। বাঙালির ঘরের মেয়ে উমা আজ কৈলাসে সন্তানদের নিয়ে ফিরে যাবে। বাঙালির আজ মন খারাপ। দুপুর গড়াতেই বিভিন্ন নদীর ঘাটে ঘাটে শুরু হয়েছে দেবীর বিসর্জন।  প্রতিমা নিরঞ্জনের সময় ভাগীরথী নদীকে দূষণমুক্ত রাখতে এবছর বিশেষ কিছু ব্যবস্থা নিয়েছে বহরমপুর পুরসভা। বহরমপুর পুর এলাকার প্রায় ২০ টি ঘাটে প্রতিমা নিরঞ্জন হলেও ৮-১০ টি ঘাটে প্রতিমা নিরঞ্জনের সংখ্যা খুব বেশি হয়। প্রশাসনের আধিকারিকদের অনুমান আজকেই প্রায় ৩০০ বারোয়ারি এবং বাড়ির পুজোর প্রতিমা নিরঞ্জন হয়ে যাবে।  বহরমপুর পুরসভার চেয়ারম্যান নাড়ুগোপাল মুখার্জী বলেন ,'আমরা সকলেই জানি প্রতিমা তৈরিতে কারিগররা যে সমস্ত রং ব্যবহার করেন তাতে বিভিন্ন ক্ষতিকারক রাসায়নিক থাকে। প্রতিমা নিরঞ্জনের সময়ে এই সমস্ত ক্ষতিকারক রাসায়নিক জলে মিশলে জল দূষিত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।'  তিনি বলেন,' গঙ্গা -ভাগীরথী আমাদের জাতীয় নদী। তাই আমাদের কর্তব্য এই নদীকে দূষণমুক্ত রাখা। প্রত্যেক দিন প্রচুর মানুষ এই নদীতে স্নান করেন এবং এই নদীর জল পানের জন্য ব্যবহার করা হয়। নদীর জল দূষিত হয়ে পড়লে চামড়া এবং অন্যান্য রোগও হতে পারে।'  নাড়ুগোপাল মুখার্জী আরও বলেন, 'বারোয়ারি পুজো কমিটিগুলি এবং বাড়ির পুজোর উদ্যোক্তারা যাতে খুব সহজে প্রতিমা নিরঞ্জন করতে পারেন সে কারণে এবছর বহরমপুর পুরসভার তরফ থেকে একাধিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। যে সমস্ত ঘাটগুলোতে প্রতিমা নিরঞ্জনের সংখ্যা বেশি ইতিমধ্যে সেগুলো আমরা সংস্কার করেছি। পাশাপাশি এ বছর প্রতিমা নিরঞ্জনের জন্য বিশেষভাবে চিহ্নিত ১৮ টি ঘাটে পর্যাপ্ত আলো এবং সিসিটিভি ক্যামেরার ব্যবস্থা থাকছে।'  তিনি জানান,' পুজোর উদ্যোক্তারা যাতে সহজেই প্রতিমা নিরঞ্জন করতে পারে সে কারণে ঘাটগুলোতে ট্রলির ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। কে এন কলেজ ঘাটে হাইড্রা ক্রেনে করে বড় প্রতিমাগুলো নিরঞ্জনের পর দ্রুত সেই কাঠামো জল থেকে তুলে ফেলা হবে। পাশাপাশি নিরঞ্জন সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করার জন্য পুরসভার ১৫৭ জন কর্মী আজ ভাগীরথীর ঘাটগুলোতে উপস্থিত থাকবেন।' চেয়ারম্যান জানান, 'পুজোর উদ্যোক্তারা যাতে ফুল বেলপাতা এবং অন্যান্য দ্রব্যাদি ভাগীরথী নদীতে না ফেলে একটি নির্দিষ্ট জায়গায় ফেলেন সে কারণে ইতিমধ্যেই পুরসভার তরফ থেকে প্রচার চালানো হয়েছে। এর পাশাপাশি ভাগীরথীর ঘাটগুলোতে পর্যাপ্ত সংখ্যক অস্থায়ী ডাস্টবিনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। সকল উদ্যোক্তারা ফল-ফুল-বেলপাতা সেখানেই ফেলবেন। পরে পুরসভার কর্মীরা সেগুলো অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাবেন।'



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর



রবিবার অনলাইন

সোশ্যাল মিডিয়া