শনিবার ২০ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Lifestyle: ডিভাইসের নীল আলো থেকে ত্বককে বাঁচাতে কী করবেন? কী বলছেন থেরাপিস্ট?

নিজস্ব সংবাদদাতা | ২৯ নভেম্বর ২০২৩ ১০ : ৪১


আজকাল ওয়েবডেস্ক: ডিজিটাল যুগে বেড়েছে স্ক্রিন টাইম। সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে প্রভাবিত হচ্ছে ত্বক। ইউভিএ বা ইউভিবি লাইট ত্বকের জন্য ক্ষতিকারক যা ত্বকের বার্ধক্যের নতুন শত্রু হয়ে উঠেছে। এবং বিগত কয়েক বছর ধরে, ত্বকের যত্নের পণ্যগুলি বিশেষভাবে এটি থেকে রক্ষা করার জন্য তৈরি করা হয়েছে। এই নিয়ে কী বলছেন থেরাপিস্ট?
সূর্য থেকে আসা ইউভি রশ্মির কথা শুনেছেন অনেকেই। সূর্য হল নীল আলোর প্রধান উৎস। নীল আলো ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক বর্ণালীর অংশ। কিন্তু ইউভি-এর তুলনায় এটি দৃশ্যমান। ডিজিটাল স্ক্রিন যেমন টিভি, ল্যাপটপ এবং মোবাইল ফোন হল অতিরিক্ত নীল আলোর উৎস। এলইডি এবং ফ্লুরোসেন্ট আলোও সমান ক্ষতিকর। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে এই নীল এল হাইপারপিগমেন্টটেশনের বড় কারণ। এটি ত্বকের কোলাজেন উৎপাদনকে প্রভাবিত করে। যদি কোনও ব্যক্তির অনেক সময় স্ক্রিনের সামনে থাকেন তবে তাঁর প্রয়োজন অতিরিক্ত ত্বকের পরিচর্যা। থেরাপিস্টের মতে এই কয়েকটি উপাদান সেক্ষেত্রে কার্যকরী-
অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস: ভিটামিন সি এবং ই, গ্রিন টিয়ের নির্যাস এবং লিঙ্গনবেরি এগুলোতে আছে উচ্চ মাত্রার পলিফেনল (অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উদ্ভিদ যৌগ) রয়েছে। যা হাইপারপিগমেন্টেশনের সমস্যায় উপকারী।
 
নিয়াসিনামাইড (ভিটামিন বি 3): নীল আলোর কারণে ত্বকে যে অক্সিডেটিভ স্ট্রেস এবং ক্ষতির হয় তা রুখতে পারে নিয়াসিনামাইড।
 
আয়রন অক্সাইড: এই বিশেষ খনিজ মূলত সানস্ক্রিন তৈরির সময় ব্যবহৃত হয়। এগুলি দৃশ্যমান আলোর বর্ণালী থেকে রক্ষা করে।  



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর



রবিবার অনলাইন

সোশ্যাল মিডিয়া