সোমবার ২২ জুলাই ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

ADHIR: নির্বাচনে পরাজয়ের পর সরাসরি দিল্লিতে কংগ্রেস নেতৃত্বের ডাক অধীরকে

Sumit | ০৭ জুন ২০২৪ ১৬ : ৩৫


আজকাল ওয়েবডেস্ক : বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে পরাজিত হলেও তাঁর সঙ্গে যে কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্বের কোনও দূরত্ব তৈরি হয়নি শুক্রবার ফের একবার তা স্পষ্ট করে দিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি তথা বহরমপুরের পরাজিত কংগ্রেস প্রার্থী অধীর চৌধুরী। শুক্রবার বহরমপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে অধীর জানিয়েছেন, আগামী কালই তিনি দিল্লিতে কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে যোগ দেবেন।
সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে অধীর চৌধুরী বলেন," আমার সঙ্গে দলের বা শীর্ষ নেতৃত্বের কোনও দূরত্ব নেই। ইচ্ছাকৃতভাবে কিছু গুজব রটানো হচ্ছে।" প্রসঙ্গত, বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রের গত পাঁচবারের বিজয়ী কংগ্রেস প্রার্থী অধীর চৌধুরী এবার তৃণমূল কংগ্রেসের ইউসুফ পাঠানের কাছে প্রায় ৮৫ হাজার ভোটে পরাজিত হয়েছেন।
অধীর চৌধুরী বলেন,"দিল্লির নেতৃত্ব আমাকে ডেকেছে কারণ আমি কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির সদস্য। আগামীকাল দিল্লিতে কমিটির বৈঠক আছে. আমি সেখানে যোগ দেব। সর্বভারতীয় কংগ্রেস সভাপতি মল্লিকার্জুন খার্গে নিজে আমাকে ফোন করে কথা বলেছেন।" 'ইন্ডিয়া' জোটের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শরিক তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে এই রাজ্যে জোট করে ভোটের লড়লে হয়তো তাঁর আসনটি বেঁচে যেত এই প্রশ্ন অধীর চৌধুরীকে করা হলে তিনি বলেন," নিজেদের ক্ষমতায় আমরা একটা আসন জিতেছি। আমি হেরেছি। ইতিমধ্যে তা আমি স্বীকার করে নিয়েছি, নতুন করে আমার আর কিছু বলার নেই। বহরমপুরের নতুন সাংসদ ইউসুফ পাঠানকে আমার শুভেচ্ছা জানাই। "
অধীর দাবি করেন,"বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষ আমাকে প্রচুর ভোট দিয়েছেন। তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা ব্যানার্জি আমার বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িকতার তাস খেলে সফল হয়েছেন। তিনি হিন্দু ভোট বিভাজন করে দেওয়ায় বিজেপির ভোট এই কেন্দ্রে গতবারের তুলনায় প্রায় আড়াই গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। যা আমার পরাজয়ের অন্যতম কারণ।"






বিশেষ খবর

নানান খবর

Advertise with us

নানান খবর



রবিবার অনলাইন

সোশ্যাল মিডিয়া