বুধবার ২৪ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Kolkata: দক্ষিণ ভারতীয় খাবার কতটা হেলদি? আলোচনায় 'ইডলিগো'র কর্ণধার অনুপ কানোরিয়া ও ক্লিনিক্যাল নিউট্রিশনিস্ট অনন্যা ভৌমিক

নিজস্ব সংবাদদাতা | ৩০ মার্চ ২০২৪ ২০ : ৫৮


নিজস্ব সংবাদদাতা: "বিশ্ব ইডলি দিবস" উপলক্ষে জনপ্রিয় ফুড ব্র্যান্ড "ইডলিগো" শনিবার, ৩০ মার্চ, ২০২৪, দক্ষিণী খাবার কতটা হেলদি সেই নিয়ে একটি বিশেষ আলোচনা আয়োজন করে কলকাতার প্রেসক্লাবে। সেখানে হাজির ছিলেন, "ইডলিগো"র কর্ণধার অনুপ কানোরিয়া, ক্লিনিকাল নিউট্রিশনিস্ট এবং লাইফস্টাইল কনসালট্যান্ট অনন্যা ভৌমিক এবং WYSIWYG-এর থেকে নিধি আসিফ। আলোচনার উদযাপন রঙিন হয়ে ওঠে "কেক কাটিং" দিয়ে। 
সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে সবকিছুই এখন ইনস্ট্যান্ট পছন্দ করেন সকলে। সেই জন্যেই প্রক্রিয়াজাত খাবারের চাহিদা বাড়ছে দিন দিন। অনুপ কানোরিয়ার মতে, ""বিশ্ব এখন সহজ, প্রক্রিয়াজাত খাবারের সমুদ্রে ডুবেছে। আশার আলো দেখাতে পারে ইডলিগো। পুষ্টি ও খাবারের মান নিয়ে সমঝোতা করে না ইডলিগো। এখানকার খাবার সতেজ ও স্বাস্থ্যকর।""
কোভিড মহামারী চলাকালীন শহরে ব্যবসা শুরু করেছিল ইডলিগো। এখন শহরজুড়ে প্রায় সাতটি আউটলেট রয়েছে। কানোরিয়ার কথায়, “আমরা ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে কলকাতার ডালহৌসি এলাকার আশেপাশে ১৫ টাকায় দুটি ইডলি বিক্রি করেছি। তাও আবার সাইকেলে ফেরি করা হত সেটি। ২০২৩ সালের মার্চ মাসে কলকাতার গিরিশ পার্কে আমাদের প্রথম "ইট এবং মর্টার" ক্যাফে চালু করি। এক বছরেরও কম সময়ে আমরা সাতটি আউটলেটে তারই করতে পেরেছি।""
পুষ্টিবিদের মতে, দক্ষিণী খাবার নানা কারণে হেলদি। এটি তাজা ও পুষ্টিকর জিনিস দিয়ে বানানো হয়। খুব কম তেল দিয়ে এটি তৈরি করা সম্ভব। কোনও রাসায়নিক জিনিস ব্যবহার করা হয় না। 
আর কিছুদিনের মধ্যেই কলকাতা ও হাওড়ায় বেশ কয়েকটি ইডলিগো এক্সপ্রেস উদ্বোধন হবে। এছাড়াও "গিফট অ্যা মিল" এর উদ্যোগ নিয়েছে এই সংস্থা। যার মাধ্যমে শহরের বিভিন্ন অঞ্চলের দুঃস্থ শিশুদের হাতে রোজ খাবার তুলে দেওয়া হয়।



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর

সোশ্যাল মিডিয়া