রাজ্য মূকাভিনয় উৎসব হয়ে গেল নদীয়ার শান্তিপুরে। শান্তিপুর পূর্ণিমা মিলনী আয়োজিত উৎসবে ১২টি জেলা থেকে শতাধিক শিক্ষার্থী আলোচনাসভা ও সান্ধ্য অনুষ্ঠানে অংশ নেয়। প্রদীপ জ্বালিয়ে উৎসবের সূচনা করেন নাট্যকার চন্দন সেন। প্রতিদিন বেলা ১০টায় কর্মশালা শুরু হত। প্রশিক্ষক ছিলেন মূকাভিনেতা বৈদ্যনাথ চক্রবর্তী, রণেন চক্রবর্তী, মুকুল দেব ও শান্তিময় রায়। আলোচনাসভায় বক্তা ছিলেন নাট্যকার–‌পরিচালক কৌশিক চট্টোপাধ্যায় ও ধ্রুব মিত্র। সন্ধ্যায় দু দিনই মঞ্চস্থ হয় মূকাভিনয়। প্রতিটি দলই মুনশিয়ানার পরিচয় দেয়। হুগলির মাইমওয়ালার ছোট ছোট শিল্পীদের অভিনয় চমৎকার। নৈহাটির মিনি মাইম রবীন্দ্রনাথের ‘‌ডাকঘর’‌ পরিবেশন করে। কলকাতা মূক অ্যাকাডেমির বিষয় ছিল সমসাময়িক। শান্তিপুর নির্বাক সংস্থার ঋত্বিকা চৌধুরি ও রূপায়ণ চৌধুরি জুটির অভিনয় উচ্চ প্রশংসিত হয়। কলকাতার মৌনমুখর–‌এর প্রযোজনায় নজরুলের লিচুচুরি ও জাতিভেদ নজর কাড়ে। প্রশংসিত হয় মছলন্দপুরের মিনি মাইম সেন্টারের পরিবেশনাও।

জনপ্রিয়

Back To Top