নববর্ষের সঙ্গে কলেজ স্ট্রিট বইপাড়ার নিবিড় যোগ অনেকদিনের। বইপ্রকাশ, লেখক–‌কবিদের নিয়ে আড্ডার রেশ ক্ষীণ হলেও আছে। গত কয়েক বছর ধরে দে’‌জ পাবলিশিং এক অন্য ধরনের পুস্তিকা প্রকাশ করে নজর কাড়ছে। তাদের এবারের উদ্যোগ ‘‌ভূতেরও ভূত আছে’‌। লেখন ও পরিকল্পনায় নীলা বন্দ্যোপাধ্যায়। কেউ মানুক ছাই না মানুক ভূতেরা আছে, থাকবে। গুগাবাবা–‌র সেই গানের মতো খোঁড়া ভূত, কানা ভূত, গোরা ভূত, কালো ভূত, রোগা ভূত, মোটা ভূত— হাজার রকমের ভূত আছে। অত জটিলতার মধ্যে না গিয়ে এই পুস্তিকা আলোচ্য করেছে বাঙালি ভূতকে। বাংলা মাসের দিনক্ষণ আছে। সেই সঙ্গেই বৈশাখে এসেছে বাড়ুল ভূত, জ্যৈষ্ঠে শাঁকচুন্নি, আষাঢ়ে পেত্নী, শ্রাবণে মেছো ভূত, ভাদ্রে চোরাচুন্নি, আশ্বিনে স্কন্ধকাটা, কার্তিকে আলেয়া, আগ্রহায়ণে নিশি, পৌষে মামদো, মাঘে বেঘোভূত, ফাল্গুনে কানাভুলো আর চৈত্রে ব্যাচেলর ব্রাহ্মণ ব্রহ্মদৈত্য। প্রতিটির সঙ্গেই আছে সুন্দর গল্প, ব্যাখ্যা। শেষে আছে জনপ্রিয় বাঙালি ভূতেরা আর ভৌতিক ও রহস্য বইয়ের তালিকা। রেখে দেওয়ার মতোই আয়োজন। রঞ্জন দত্ত দুর্দান্ত অলঙ্করণ করেছেন।

জনপ্রিয়

Back To Top