কবিতার সঙ্গেই তাঁর কেটে গেছে অর্ধশতকের বেশি কাল। উচ্চস্তরের সরকারি বাস্তুকারের দায়িত্ব সামলানোর পাশাপাশি নিরবচ্ছিন্নভাবে চালিয়ে গেছেন সাহিত্য সাধনা। প্রকাশিত হয়েছে একে একে ২১টি কাব্যগ্রন্থ-সহ বহু সঙ্কলন গ্রন্থও। অগ্রণী কবিদের সান্নিধ্য, ভালবাসা আর নিরন্তর চর্চায় নিজেকে প্রমাণ করেছেন একজন সর্বাঙ্গীণ কবিতার মানুষ হিসাবে। নবীন কবিদের তুলে এনেছেন তাঁর 'সাহিত্য কমল' গোষ্ঠীর নানাবিধ কর্মসূচির মধ্য দিয়ে। এই সময়ের সেই বর্ষীয়ান ও বিশিষ্ট কবি কমল দে শিকদারের ৮০তম জন্মদিন পালন ও তাঁকে ‘‌শিল্পীমন সম্মান ২০১৮’‌-তে প্রণাম জানাল শিল্পীমন। সম্প্রতি পূর্বাঞ্চল সংস্কৃতি কেন্দ্রের ঐকতান সভাঘরে। কবিতাপাঠ, ফুল-মিষ্টি-কথায় এই উজ্জ্বল কমল-বরণ আসরে ছিলেন কবি কৃষ্ণা বসু, অরুণকুমার চক্রবর্তী, দীপেন ভাদুড়ি, কেতকীপ্রসাদ রায়-সহ শতাধিক বহু শিল্পী-সাহিত্যিক, আগ্রহী মানুষ।

জনপ্রিয়

Back To Top