স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড চান দিলীপ ঘোষও!‌ সৌগত বললেন, ‘‌বয়স বাড়ছে, করিয়ে নিন, উপকার হবে’‌

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মমতা সরকারের ‘‌স্বাস্থ্যসাথী’‌ প্রকল্পকে দিন–রাত ‘‌ভাঁওতাবাজি’‌ বলে কটাক্ষ করেছেন। এবার নিজেই স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করাতে চান বলে ইচ্ছাপ্রকাশ করলেন বঙ্গ বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর পরিবারও স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে নাম লিখিয়েছে। কার্ডও হাতে পেয়েছেন তাঁরা। এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই বেজায় অস্বস্তিতে পড়েছেন বিজেপি নেতা। কিন্তু মচকালেন না তিনি। এই প্রকল্পের জন্য টাকা আসবে কোত্থেকে, সেই প্রশ্ন তুলে দিলেন। 
জানা গেছে, ঝাড়গ্রামের গোপীবল্লভপুরে তাঁর বাড়ির লোকজন লাইনে দাঁড়িয়ে কার্ড নিয়েছেন। সূত্রের খবর, এমনকী দিলীপের ভাই, গোপীবল্লভপুরের ২ নং ব্লকের বিজেপি প্রধান, হীরক ঘোষ রাজ্য সরকারের ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচির শিবিরেও হাজির ছিলেন। তারই প্রেক্ষিতে দিলীপবাবু বলেন, ‘‌আমি স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের বিরোধী নই, জালিয়াত তৃণমূল সরকারের বিরোধী। সুযোগ পেলে আমিও স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের জন্য আবেদন করব।’‌ কিন্তু যদি সুবিধাই না পাওয়া যায়, কার্ড করিয়ে কী লাভ?‌ তাঁর প্রশ্ন। বলেন, ‘‌রাজ্যের ১০ কোটি মানুষের মধ্যে ৫ শতাংশও এই প্রকল্পের সুবিধা পান, তাহলে রাজ্য সরকারের খরচ হবে ৫০ হাজার কোটি টাকা। এদিকে চলতি অর্থবর্ষে ১২ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে রাজ্য সরকার।’‌
যদিও বিজেপির রাজ্য সভাপতির এই বক্তব্যকে গুরুত্ব দিতে নারাজ শাসক শিবির। তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় বলেন, ‘‌স্বাস্থ্যসাথী কার্ড যে কতটা জরুরি, তা দিলীপবাবুর পরিবারও বুঝেছে। তাই কার্ড করিয়েছেন তাঁরা। এখন দিলীপবাবুও বুঝছেন। বয়স বাড়ছে ওনার। শরীর–স্বাস্থ্য ভাল রাখতে ওনারও উচিত এই কার্ড করিয়ে নেওয়া। উপকার পাবেন উনি।’‌