দীপঙ্কর নন্দী: বৃহস্পতিবার ভাটপাড়ায় দুই প্রার্থী দীনেশ ত্রিবেদি ও মদন মিত্রের সমর্থনে প্রচার করতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বলেন, ‘‌সাহস থাকে ৪০ জন বিধায়কের মধ্যে একজনের নাম বলুন। তৃণমূলকে কিনতে পারবেন না। বাংলায় প্রচার করতে এসে মোদি ঘোড়া কেনা–‌বেচা শুরু করে দিয়েছেন। লজ্জা থাকা উচিত আপনার। বিজেপি ভোট পায় না। আগে লোকসভায় জেতো, তারপর দেখব হিম্মত। তোতাপাখির ভোঁতা বুলি বিজেপির।’‌ দীনেশের বিরুদ্ধে ব্যারাকপুরে লোকসভায় প্রার্থী হয়েছেন বিজেপির অর্জুন সিং। ভাটপাড়া উপনির্বাচনে অর্জুনের ছেলে পবন সিং দাঁড়িয়েছেন তৃণমূলের মদন মিত্রের বিরুদ্ধে। বক্তৃতায় মমতা বলেন, ‘‌বাপ–‌বেটার জমানত জব্দ করুন।’‌ 
অর্জুন সম্পর্কে মমতা বলেন, ‘‌লোকসভার টিকিট চেয়েছিলেন। ওর সব চাই। কাউন্সিলর চাই, বিধায়ক চাই, মল চাই, বাজার চাই ওর। আমি কীভাবে দেব?‌ দল থেকে অনেক কিছু নিয়ে গদ্দারি করেছে। সব তুমি একলা খাবে কেন?‌’‌ দীনেশ সম্পর্কে মমতা বলেন, ‘‌সংসদে ভাল ভূমিকা নেওয়ার জন্য দীনেশদা শ্রেষ্ঠ সাংসদ হয়েছিলেন। তার জন্য আমরা গর্বিত।’‌ দীনেশদা খুব ভাল মানুষ। সমাজসেবামূলক কাজও করেন। সৌগত রায়ের মতো সাংসদ দলে দরকার। তাই আবার ওঁকে টিকিট দিয়েছি। সংসদে ওঁর ভূমিকা খুবই ভাল।’‌ ‌এদিনই তিনি পলতা ও রাজারহাটে নির্বাচনী প্রচার করে খড়্গপুরে রওনা হয়ে যান। প্রখর রোদ উপেক্ষা করে ভাটপাড়া, পলতা ও রাজারহাটে মানুষ আসেন মমতার সভায়। ৩ সভার মঞ্চ থেকেই মমতা মোদির উদ্দেশ্যে বলেন, ‘‌৫ বছরে কী কাজ করেছেন তার কৈফিয়ত দিন।’‌  তিনি বলেন, ‘‌কলকাতায় হোটেলে বসে আছে আরএসএস–‌এর কয়েকজন। বসে থাকলে কী হবে, ভোট কিন্তু বিজেপি একটাও পাবে না। অন্ধ্রপ্রদেশে শূন্য পাবে, তামিলনাড়ুতে ১টা পাবে, উত্তরপ্রদেশে ২০টার বেশি পাবে না। 
মমতা বলেন, ‘‌আমরা দাঙ্গাবাজদের ছাড়ব না।’‌ শ্রোতাদের উদ্দেশে মমতা জানতে চান, চৌকিদারকে কি বলা হয়?‌ সকলেই হাত তুলে সমস্বরে বলেন, চৌকিদার চোর হ্যায়। মমতা বলেন, ‌‘‌আমি বলছি না, জনগণই সব বলে দিয়েছে। এই ভাটপাড়ায় কংগ্রেস–‌সিপিএম–‌বিজেপি কি করেছে আমি বলতে পারব না। তবে বহরমপুর, জঙ্গিপুরে তিন দলকে একসঙ্গে কাজ করতে দেখেছি।এবার থেকে ভাটপাড়া আমি দেখব।’‌ 
পলতা থেকে উদয় বসু:‌ ‌মমতা বলেন, ‘‌তোতাপাখির ভোঁতা বুলি বিজেপির। রাম চন্দ্রকে ইলেকশন এজেন্ট বানাই না। গঙ্গাসাগর আগে কী ছিল? বলা হত, সব তীর্থ বারবার গঙ্গাসাগর একবার। এখন বলা হয়, সব সাগর একবার গঙ্গাসাগর বারবার। শুধু গঙ্গাসাগর কেন ঘুরে আসুন দক্ষিণেশ্বরে, বেলুড়ে, তারাপীঠ, বক্রেশ্বর, কঙ্কালীতলা সুন্দর করে সাজিয়ে দিয়েছি। গঙ্গার পাড়গুলো সেজে উঠেছে। চাওয়ালা থেকে চৌকিদার হয়েছে। তিনি কারও নাম না করে বলেন অনেক গুন্ডা গদ্দারি দেখেছি, আমি ভয় পাই না। আমি লড়াই করি।

 

ভাটপাড়ার জনসভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। ছবি: আজকাল

জনপ্রিয়

Back To Top