India-England: রুট-বেয়ারস্টো জুটিতে সুবিধাজনক জায়গায় ইংল্যান্ড, চাপে ভারত

আজকাল ওয়েবডেস্ক: এজবাস্টনে ইতিহাসের সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে ছিল ভারত। ইংল্যান্ডের পয়া মাঠে প্রথম জয়ের হাতছানি ছিল। একই সঙ্গে ছিল ইংল্যান্ডের মাটিতে টেস্ট সিরিজ জয়ের সুযোগ। কিন্তু জো রুট এবং জনি বেয়ারস্টোর দাপটে সেটা এখন অনেকটাই ফিকে। শুরুতে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে গিয়েছিল ইংল্যান্ড। কিন্তু দু'জনের অনবদ্য ব্যাটিংয়ে চতুর্থ দিনের শেষে আবার চালকের আসনে স্টোকসরা। পঞ্চম দিন জিততে ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ১১৯ রান। আর ভারতের দরকার ৭ উইকেট। শেষদিন প্রথম ৩০ মিনিটের মধ্যে জোড়া উইকেট ফেলে দিতে পারলে ভারতের সামনে জয়ের একটা কিঞ্চিৎ সুযোগ থাকবে। তবে যেভাবে ব্যাট করছেন রুট, বেয়ারস্টো, সেটা যথেষ্ট কঠিন হবে। এদিন চতুর্থ উইকেটে ১৫০ রান যোগ করে এই জুটি। তবে দু'বার প্রাণ ফিরে পান বেয়ারস্টো। প্রথমবার ব্যক্তিগত ১৪ রানের মাথায় মহম্মদ সিরাজের বলে দ্বিতীয় স্লিপে তাঁর ক্যাচ ফস্কান হনুমা বিহারী। দ্বিতীয়বার উইকেটের পেছনে তালুবন্দি করতে পারেননি পন্থ। তারই খেসারত দিতে হল। দিনের শেষে ৭৬ রানে অপরাজিত রুট।

৭২ রানে ব্যাট করছেন বেয়ারস্টো। মঙ্গলবার সকালে এই জুটিকে দ্রুত ফেরাতে না পারলে হার নিশ্চিত ভারতের।  টেস্টে শেষ ইনিংসে ৩৭৭ রান তাড়া করে জেতা একেবারেই সহজ নয়। কিন্তু আগ্রাসী ব্র্যান্ড অফ ক্রিকেট দিয়ে নতুন করে ভাবতে শেখাচ্ছে বদলে যাওয়া ইংল্যান্ড। 

তৃতীয় দিনের শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে ভারতের রান ছিল ১২৫। অর্ধশতরান করে ক্রিজে ছিলেন চেতেশ্বর পূজারা। অন্য প্রান্তে ৩০ রানে অপরাজিত ছিলেন ঋষভ পন্থ। ২৫৭ রানে এগিয়ে ছিল ভারত। মনে হয়েছিল পূজারা পন্থ, জাদেজার ব্যাটে ভর করে অন্তত ৪০০ রানের লিড নেবে টিম ইন্ডিয়া। কিন্তু চতুর্থ দিন বেশি রান যোগ করতে পারেনি ভারতীয় দল। মাত্র ১২০ রানে ৭ উইকেট পড়ে যায়। এদিন ১৬ রান যোগ করতে সক্ষম হন পূজারা। অর্ধশতরান করে আউট হন ঋষভ পন্থ (৫৭)। প্রথম ইনিংসে দুরন্ত শতরানের পর এবারও ব্যাট হাতে রান পান ভারতের উইকেটকিপার ব্যাটার। তবে এই দু'জন ছাড়া কেউ রান পায়নি। আবার ব্যর্থ শ্রেয়স আইয়ার (১৯)। ২৩ রানে স্টোকসের বলে বোল্ড হন রবীন্দ্র জাদেজা। প্রথম ইনিংসে ব্রডের ওভারে বুমরা সবাইকে চমকে দিলেও এদিন লোয়ার অর্ডার বিশেষ রান যোগ করতে পারেনি।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং ব্যর্থতায় মাত্র ২৪৫ রানে অলআউট হয়ে যায় ভারত। ৩৭৭ রানে এগিয়ে ছিল কোহলিরা। 

পয়া এজবাস্টনে সিরিজে সমতা ফেরাতে দেড় দিনে পৌনে চারশো রান টার্গেট নিয়ে ব্যাট করতে নামে ইংল্যান্ড। লক্ষ্য যথেষ্ট কঠিন ছিল। কিন্তু শুরুটা দারুণ ইতিবাচকভাবে করেন দুই ওপেনার অ্যালেক্স লিস এবং জ্যাক ক্রলে। পার্টনারশিপ ভাঙতে হিমশিম খায় ভারতীয় বোলাররা। প্রথম উইকেটে ১০৭ রান যোগ করে ইংল্যান্ডের ওপেনাররা। ৪৪ বলে অর্ধশতরান সম্পূর্ণ করেন লিস। জো রুটের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝির জেরে ৫৬ রানে রান আউট হন ইংল্যান্ডের ওপেনার। তার আগেই অবশ্য ৪৬ রানে ক্রলেকে ফিরিয়ে দেন বুমরা। চা পানের বিরতির আগে শেষ ওভারে এবং তারপর প্রথম ওভারেই পর পর জোড়া উইকেট তুলে নেন ভারত অধিনায়ক। ১০৯ রানে ৩ উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। কিন্তু এই জায়গা থেকে দলকে টেনে তোলেন জো রুট এবং জনি বেয়ারস্টো। তাঁদের জুটিতে ভর করে ম্যাচে ফেরে ইংল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে শতরানের পর এদিনও রান পান বেয়ারস্টো। দু'জনেই অর্ধ শতরান করেন। ৭১ বলে ৫০ করেন রুট। ৭৫ বলে অর্ধশতরান সম্পূর্ণ করেন বেয়ারস্টো। দু'জনের অনবদ্য ব্যাটিংয়ে চতুর্থ দিনের শেষে ভাল জায়গায় ইংল্যান্ড।

আকর্ষণীয় খবর