আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বালাকোট হামলার আঁচ আগেই দিয়েছিলেন তিনি। সেই নিয়ে এখন তোলপাড় গোটা দেশ। শুধু তাই নয়, পুলওয়ামা হামলা নিয়েও উচ্ছ্বসিত ছিলেন অর্ণব গোস্বামী। যেখানে প্রাণ হারিয়েছিলেন অন্তত ৪০ জন জওয়ান। এই নিয়েই এবার টুইটারে বিস্ময় প্রকাশ করলেন বিশিষ্ট আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ। তুলে ধরলেন রিপাবলিক চ্যানেলের সম্পাদকের মেসেজের সেই অংশ। 
প্রশান্ত ভূষণ লিখলেন, ‘‌অর্ণবের হোয়্যাটস্‌অ্যাপ চ্যাট থেকে স্পষ্ট যে পুলওয়ামা হামলা, যেখানে প্রাণ গেছে ৪০ জওয়ানের, তা নিয়ে উনি উচ্ছ্বসিত। লিখেছেন, ‘‌‘‌আমরা বড় জয় পেয়েছি’‌’‌। এবং বালাকোট হামলা নিয়ে আগাম খবর ছিল ওঁর কাছে। তিনি বলেন, ‘‌‘‌মানুষ গর্বিত হবেন’‌’‌ এই স্ট্রাইকে।’‌ এই প্রসঙ্গে ভূষণ পুরনো একটি প্রতিবেদনের উল্লেখ করেন। যেখানে পুলওয়ামা কাণ্ড নিয়ে বেশ কিছু প্রশ্ন তোলা হয়। ঠারেঠোরে আঙুল ওঠে সরকারের দিকেই। 
এর পর প্রশান্ত ভূষণ আঙুল তুললেন মোদি সরকারের দিকেও। সংবাদ মাধ্যমের একাংশের সঙ্গে সরকারি যোগসাজশ নিয়েও প্রশ্ন তুললেন। রেটিং সংস্থা বার্ক–এর সিইও এবং অর্ণবের চ্যাটের স্ক্রিনশট তুলে টুইটারে লিখলেন, ‘‌এগুলো আসলে ষড়যন্ত্র আর এই সরকারে কারও কারও নজিরবিহীন ক্ষমতাভোগের সুযোগকেই তুলে ধরে। তাঁর সংবাদমাধ্যম এবং ক্ষমতার দালাল হিসেবে অবস্থানের অপব্যবহারই প্রকাশ করে। যে কোনও দেশের আইনে তাঁর দীর্ঘসময় জেলে থাকার কথা।’‌ 
২০১৯ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি হোয়াটস্‌অ্যাপ চ্যাটে বার্কের প্রাক্তন সিইও পার্থ দাশগুপ্তকে অর্ণব গোস্বামী লিখেছিলেন, ‘‌সাধারণ হামলার চেয়ে বড় কিছু!‌’ তিন দিন পর অর্থাৎ ২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের বালাকোটে বড়সড় অভিযান চালায় ভারতীয় বায়ুসেনা। পার্থ এবং অর্ণবের কথোপকথনের স্ক্রিনশট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, এত বড় সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের বিষয়ে যেখানে কেউই জানতেন না, অর্ণব গোস্বামী জানলেন কী করে?‌  

 

জনপ্রিয়

Back To Top