আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ভারতে সন্ত্রাসবাদ ছড়াতে এবার বিকল্প পথ ধরতে চাইছে পাকিস্তান। জঙ্গি হামলা মদত দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রথমেই আসে পাকিস্তানের নাম। এবার ঢাকায় বসে তারা ভারতে হামলা চালাতে চায় বলে গোয়েন্দা সূত্রে খবর। এমনকী বাংলাদেশের বুকে জঙ্গি হামলা চালানোর পরিকল্পনা করছে বলে গোয়েন্দাদের রিপোর্ট। ওই জঙ্গি হামলার পরিকল্পনা করা হচ্ছে ঢাকার পাক দূতাবাস থেকেই। যেখানে ঠিক হয়েছে তারা সন্ত্রাসবাদ হামলা করতে পারে খোদ পশ্চিমবঙ্গেও। 
গোয়েন্দা রিপোর্ট অনুযায়ী, কূটনীতিকের ছদ্মবেশে পাক গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের লোকজন ঢাকায় জঙ্গি গোষ্ঠীগুলির সঙ্গে বৈঠক করেছে। পাক হাই কমিশনের এক কূটনীতিক সম্প্রতি গোপনে এক বাংলাদেশি জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। সেখানে আত্মঘাতী হামলার জন্য কমপক্ষে ১০০ জন জঙ্গিকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার কথা ঠিক হয়েছে। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত আত্মঘাতী জঙ্গিদের পশ্চিমবঙ্গেও হামলার জন্য পাঠানো হতে পারে। যা অত্যন্ত চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। কারণ বাংলাদেশ সীমান্ত পার করলেই পশ্চিমবঙ্গে ঢুকে পড়া সম্ভব। বনগাঁ–পেট্রাপোল সীমান্ত দিয়ে ঢুকতে পারে তারা বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
শেখ হাসিনা সরকার এই কূটনীতিকদের বিষয়ে আপত্তি তুলেছে ইতিমধ্যেই। হাসিনা সরকারের বক্তব্য, আইএসআইয়ের কাজকর্মের জন্য কূটনীতিকদের আশ্রয় নিচ্ছে পাকিস্তান। সেক্ষেত্রে ঢাকায় পাক হাইকমিশনকে বাংলাদেশ বিরোধী কার্যকলাপের কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা হচ্ছে। পাকিস্তান কীভাবে ভারতের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করার জন্য কূটনীতিকদের ব্যবহার করছে তা ভারত জানে। পাকিস্তানের অধিকাংশ কূটনীতিক আইএসআইয়ের এজেন্ট। ঢাকায় পাকিস্তান হাইকমিশন জাল ভারতীয় টাকা ছড়ানোর কাজে জড়িত। সেপ্টেম্বর মাসে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে একটি গুরুত্বপূর্ণ গোয়েন্দা রিপোর্ট জমা পড়ে। সেখানে বলা হয়েছে বাংলাদেশের নির্বাচনের সময়ে সেখানে জঙ্গি হামলার পরিকল্পনা করেছে জেএমবি। 

জনপ্রিয়

Back To Top