আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ যন্তর মন্তরে ধর্নার পরেই রাতে দিল্লিতে শরদ পাওয়ারের বাড়িতে বৈঠকে বসেন মহাজোটের নেতারা। ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা ব্যানার্জি, কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। আপ সুপ্রিমো অরবিন্দ কেজরিওয়াল, চন্দ্রাবাবু নাইডু, ফারুক আবদুল্লাহ এবং শরদ পাওয়ার। ঘণ্টা খানেক বৈঠকের পর সকলে মিলে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন। সেখানেই সব নেতারাই একজোট হয়ে জতীয় স্তরে লড়াইয়ের বার্তা দিয়েছেন। বৈঠক অত্যন্ত গঠন মূলক হয়েছে বলে জানিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। মোদিকে হঠাতে ভোটের আগেই জোট করা হয়েছে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। জাতীয় স্তরে কংগ্রেসের সঙ্গে একজোট হয়ে লড়াইয়ের বার্তা গিয়েছেন তিনি। মহাজোটে যাতে কোনও সমস্যা তৈরি না হয় সেজন্য অভিন্ন ন্যূনতম কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। ২৬, ২৭ এবং ২৮ ফেব্রুয়ারি ফের দিল্লিতে মহাজোটের বৈঠক হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। সেই বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন মমতা ব্যানার্জিও। 
অরবিন্দ কেজরিওয়াল, ফারুক আবদুল্লাহ, চন্দ্রবাবু নাইডু সকলেই একজোটে বলেছেন, এবারের লোকসভা ভোটে একটাই লক্ষ্য মোদি হঠাও। দেশের সংবিধান এবং গণতমন্ত্র রক্ষা করতে মোদি এবং অমিত শাহের নেতৃত্বে গঠিত বিজেপি সরকারকে উৎখাত করতে হবে। আর এসএস এবং বিজেপির হাত থেকে দেশ থেকে বাঁচাতেই এই মহাজোট কাজ করবে। তার জন্য যেকোনও মূল্য দিতে প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন ফারুক আবদুল্লাহ। দিল্লিতে ধর্না মঞ্চে সামিল হওয়ার জন্য মমতা ব্যানার্জিকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন তিনি। 

 

 


জনপ্রিয়

Back To Top