আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ দিল্লিতে মঙ্গলবার বিকেলেই পৌঁছে গিয়েছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তারপর থেকেই রাজধানী জুড়ে জোর রাজনৈতিক তৎপরতা শুরু হয়ে যায়। চন্দ্রবাবু নাইডুর ধর্না মঞ্চে গিয়ে তাঁর পাশে থাকার বার্তা দেওয়া এবং বুধবার আম আদমি পার্টির সমাবেশে বক্তব্য রাখবেন তিনি। জাতীয় রাজনীতির অলিন্দে তিনিই যে এখন মধ্যমণি তা সকলেই বুঝিয়ে দিয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদির সরকারকে কার্যত তুলোধনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। 
এদিন সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘‌আজ সংসদের শেষ দিন। তাই আমি সংসদের সেন্ট্রাল হলে যাবো এবং বাপুর (‌মহাত্মা গান্ধী)‌ কাছে প্রার্থনা করব দেশ থেকে বিজেপিকে হটাতে। এবং মোদিবাবুকে সরিয়ে দেশকে বাঁচাতে। সবাইকে নিরাপদে রাখার প্রার্থনাও করব।’‌ অর্থাৎ লোকসভা অধিবেশনের শেষদিনে জাতীয় রাজনীতিতে ফের বার্তা দিতে চাইলেন মমতা। যেখানে একটাই বার্তা দিলেন তিনি। আর তা হল মোদিকে সরিয়ে দেশকে বাঁচাতে হবে। দেশের তাবড় নেতা–নেত্রীরা এদিন দেখা করেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে। সেখানে বহু বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। 
এদিন বঙ্গভবন থেকেই জিটিএ ভবনের উদ্বোধন করেন তিনি। রাহুল গান্ধীও এদিন তৃণমূলের ধর্নাতে এসে শুভেচ্ছা দিয়ে যান। ফলে দিল্লি জুড়ে এখন বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে নিয়ে বিভিন্ন আঞ্চলিক দলগুলির নেতা–নেত্রীদের মধ্যে তৎপরতা তুঙ্গে। 

 


 

জনপ্রিয়

Back To Top