Kapil Sibal: ‌কংগ্রেস ছাড়লেন বিক্ষুব্ধ নেতা কপিল সিবল, অখিলেশের সমর্থনে নির্দল প্রার্থী হিসেবে রাজ্যসভায় মনোনয়ন পেশ 

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ কংগ্রেসে বড় ধাক্কা।

দল ছাড়লেন প্রবীণ নেতা কপিল সিবল। অখিলেশ যাদবের সমর্থনে সিবল নির্দল প্রার্থী হিসেবে রাজ্যসভায় মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। মনোনয়ন পেশের সময় তাঁর পাশে ছিলেন এসপি প্রধান অখিলেশ যাদব। এটা ঘটনা সিবলের রাজ্যসভার সাংসদ পদের মেয়াদ শেষ হওয়ার পথে। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের ধারণা, এবার এসপির হয়ে রাজ্যসভায় যাবেন সিবল। 
পেশায় আইনজীবী কপিল সিবল দীর্ঘদিন কংগ্রেসের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। দীর্ঘদিন ছিলেন কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ। কিন্তু সম্প্রতি কংগ্রেস তাঁকে আবার রাজ্যসভায় পাঠাবে কি না তা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়। মূলত বিক্ষুব্ধ গোষ্ঠীর নেতা কপিলের দাবি, গত ১৬ মে তিনি কংগ্রেস ছেড়েছেন। সোনিয়া গান্ধীকে পদত্যাগপত্র পাঠিয়েছেন। মনমোহন জমানায় একাধিক গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রকের দায়িত্ব সামলেছেন সিবল। রাজ্যসভায় মোদি সরকারের দিকে তীক্ষ্ণ আক্রমণ শানানোর ব্যাপারে প্রথম সারিতে ছিলেন তিনি। কিন্তু সম্প্রতি কংগ্রেসের বর্তমান নেতৃত্বের সঙ্গে তাঁর মতের অমিল হয়। কংগ্রেসের পরিচালন পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি। সম্প্রতি জয়পুরে চিন্তন শিবির শেষে বিক্ষুব্ধ শিবিরের (জি ২৩ নামে পরিচিত) দুই নেতা আনন্দ শর্মা ও গুলাম নবি আজাদকে গুরুত্ব দেওয়া হলেও, কংগ্রেসে কপিল ‘উপেক্ষিত’ই ছিলেন। বুধবার অখিলেশ, রামগোপালকে পাশে নিয়ে রাজ্যসভার মনোনয়ন পেশের পর কপিল বলেন, ‘আমি বরাবরই মোদি বিরোধী কথা বলে এসেছি। উত্তরপ্রদেশের সঙ্গে আমার বহুদিনের সম্পর্ক। আশা করছি, একই ভূমিকায় ফের সংসদে আওয়াজ তুলতে পারব। নির্দল প্রার্থী হিসেবে রাজ্যসভার মনোনয়ন পেশ করলাম। বরাবরই দেশের জন্য মুক্তকণ্ঠ হতে চেয়েছি। সংসদে কোনও রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি হিসেবে কথা বলার চেয়ে স্বাধীন কণ্ঠ হিসেবে মতপ্রকাশ করলে দেশবাসীর কাছে অনেক বেশি বিশ্বাসযোগ্য হয়। এবার সেই কাজটাই করতে চাইছি।’ কংগ্রেসের সমালোচনা করে সিবল বলেছেন, ‘‌দলে আর একজনও সিরিয়াস নেতা নেই।’‌ এদিন অখিলেশ বলেন, ‘‌কপিল সিবলই প্রথম ব্যক্তি যাঁকে আমরা রাজ্যসভা নির্বাচনের জন্য বেছে নিলাম। আরও দুটি মনোনয়ন শীঘ্রই ঘোষণা করা হবে।’‌ 

 

আরও পড়ুন:‌ নীল চা তৈরি করে এবার তাক লাগাল মাঝেরডাবরি


আকর্ষণীয় খবর