আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ভদ্রর সক্রিয় রাজনীতিতে প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গে শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজনৈতিক মহলে। লোকসভা ভোট তো বটেই উত্তর প্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনেও যে প্রিয়াঙ্কার ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে চলেছে তাতে কোনও সন্দেহ নেই। প্রিয়াঙ্কার কাঁধে ভর করেই ফের উত্তর প্রদেশের মাটি দখল করতে চাইছে কংগ্রেস। ৩০ বছর বনবাস কাটানোর পর ফের রাজ্য দখলের লড়াইয়ে নামতে চাইছেন রাহুল গান্ধীরা। 
সূত্রের খবর ২০২২–এ উত্তর প্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী করা হবে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ভদ্রকে। ২০১৭–র বিধানসভা ভোটে ৪০৩টি আসনের মধ্যে কংগ্রেসের ভাগ্যে জুটেছিল মাত্র সাতটি আসন। তাতে অনেকটাই হতাশ হয়ে পড়েছিলেন দলের কর্মী সমর্থকরা। এমনকী রায়বরেলি এবং আমেঠিতেও ক্রমশ ভোট হারাতে শুরু করেছিল তাঁরা। প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে দলের সাধারণ সম্পাদক পদে নিয়োগ করার সঙ্গে সঙ্গে নতুন করে উদ্যোম পেয়েছেন উত্তর প্রদেশের কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরা। 
উত্তর প্রদেশে রোড শো করার পাশাপাশি জেলা স্তরের পার্টি কর্মীদের নিয়েও বৈঠক করবেন তিনি। প্রায় ১২ ঘণ্টা ধরে দফায় দফায় সেই বৈঠক হবে বলে কংগ্রেস হাইকমান্ডের তরফে জানানো হয়েছে। সকাল ১১টা থেকে রাত ১১ টা পর্যন্ত দফায় দফায় বৈঠক করার কথা প্রিয়াঙ্কার। 
১৩ ফেব্রুয়ারি দিল্লিতে ফিরে এলেও ফের লখনউ যাবেন তিনি।  গোরখপুর, ফৈজাবাদ, বারাণসী এবং এলাহাবাদের দলীয় কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করার কথা প্রিয়াঙ্কার। পূর্ব উত্তর প্রদেশের ৪২টি কেন্দ্রের দায়িত্ব রাহুল প্রিয়াঙ্কাকে দিয়েছেন। লোকসভা ভোট প্রিয়াঙ্কার অ্যাসিড টেস্ট বলে মনে করছেন রাজনীতিকরা। আসল লক্ষ্য ২০২২–এর উত্তর প্রদেশ বিধানসভা নির্বাচন। 

জনপ্রিয়

Back To Top