আজকালের প্রতিবেদন: স্বামী বিবেকানন্দের শিকাগো বক্তৃতার ১২৫তম বর্ষ উদ্‌যাপনের সময় সেখানে যেতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। ১১ সেপ্টেম্বর বক্তৃতার দিনটিকে সম্প্রীতি দিবস পালন করবে রাজ্য সরকার। স্বামী বিবেকানন্দের ওই বক্তৃতাটি স্কুল পাঠ্যসূচিতে অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। বৃহস্পতিবার স্বামী বিবেকানন্দের বক্তৃতার ১২৫তম বর্ষ উদ্‌যাপন কমিটির প্রথম বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির নেতৃত্বে এই কমিটির সিদ্ধান্ত হয়েছে, এ বছরে ১১ সেপ্টেম্বর বক্তৃতার দিনটিকে রাজ্যে সম্প্রীতি দিবস হিসেবে পালন করা হবে। এবং ১১ থেকে ১৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সম্প্রীতি সপ্তাহ হিসেবে পালন করা হবে। এদিন এই কমিটির বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানাজি, শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জি, মুখ্য সচিব মলয় দে, স্বরাষ্ট্র সচিব অত্রি ভট্টাচার্য, উচ্চশিক্ষা সচিব আর এস শুক্লা, তথ্য–‌সংস্কৃতি সচিব বিবেক কুমার, বেলুড় মঠের সাধারণ সম্পাদক সুবীরানন্দ মহারাজ এবং অন্যান্য মহারাজ, নৃসিংহপ্রসাদ ভাদুড়ী, শুভাপ্রসন্ন–সহ অন্যরা। ১৮৯৩ সালের ১১ সেপ্টেম্বর শিকাগোতে যে হলে স্বামী বিবেকানন্দ বক্তৃতা দিয়েছিলেন, সেই আর্ট ইনস্টিটিউট অফ কলম্বাস হলে অনুষ্ঠান করতে চায় রামকৃষ্ণ মিশন বেলুড় মঠ। আগস্টের শেষ সপ্তাহে এই হল ভাড়া পাওয়া গেলে এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির সময় হলে এই হলে অনুষ্ঠান করা হবে বলে জানিয়েছেন রামকৃষ্ণ মিশন বেলুড় মঠের সাধারণ সম্পাদক সুবীরানন্দ মহারাজ। এদিন উদ্‌যাপন কমিটির বৈঠকে তিনি শিকাগোর ওই অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রীকে উপস্থিত থাকার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, তিনি যথাসাধ্য চেষ্টা করবেন ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার জন্য। সিমলা স্ট্রিটে স্বামী বিবেকানন্দের পৈতৃক বাড়িতে লাইট অ্যান্ড সাউন্ডের মাধ্যমে স্বামী বিবেকানন্দের জীবনী এবং বক্তৃতা দেখানো হবে। এ কথা জানিয়েছেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জি। সুবীরানন্দ মহারাজ জানিয়েছেন, ১১ সেপ্টেম্বর বেলুড়ে মূল অনুষ্ঠানের সূচনা হবে। উপস্থিত থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্য সরকারের তরফ থেকে সমাপ্তি অনুষ্ঠান হবে ১৯ সেপ্টেম্বর নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়ামে। মহারাজ বলেন, একমাত্র পশ্চিমবঙ্গ সরকারই স্বামী বিবেকানন্দের এই শিকাগো বক্তৃতার ১২৫তম বর্ষ পালনের জন্য উদ্‌যাপন কমিটি তৈরি করে গোটা রাজ্য জুড়ে অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে। তিনি বলেন, ১৮৯৩ সালের ১১ সেপ্টেম্বর শিকাগোতে দাঁড়িয়ে স্বামী বিবেকানন্দ ধর্মীয় কুসংস্কার সেই সময়কার সভ্যতাকে যে বিকৃত করছিল, তা তুলে ধরেছিলেন। তিনি সহিষ্ণুতার নতুন বাণী সমগ্র পৃথিবীকে শুনিয়েছিলেন। এই দিনটি সারা বিশ্বেই উদ্‌যাপিত হবে। ১১ থেকে ১৯ সেপ্টেম্বর সম্প্রীতি সপ্তাহে স্বামী বিবেকানন্দের এই বক্তৃতাটি নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত সমস্ত ছাত্রছাত্রীকে শোনানো হবে, যাতে ছাত্রছাত্রীরা যে–‌কোনও রকম গোঁড়ামি ছেড়ে মুক্ত মন নিয়ে বড় হয়ে ওঠে। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শুধু স্কুল নয়, কলেজে কলেজেও এই বক্তৃতা শোনানোর ব্যবস্থা করা হবে। এ ছাড়াও রাজ্য জুড়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠান, আলোচনাসভা ও পদযাত্রার আয়োজন করা হবে। রাজারহাটে বেলুড় মঠ সেন্টার ফর এক্সেলেন্স তৈরি করার যে উদ্যোগ নিয়েছে তাতে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে আরও ১০ কোটি টাকা দেওয়া হবে। আগেই জমির পাশাপাশি স্কুলশিক্ষা দপ্তর এবং নগরোন্নয়ন দপ্তর থেকে ১০ কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে। ‌‌‌

 

সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী। নারীদিবসে, মেয়ো রোডে। বৃহস্পতিবার। ছবি: তপন মুখার্জি

জনপ্রিয়

Back To Top