Bird Flu: করোনা সংক্রমণ কমতে না কমতেই দেশে আতঙ্ক ছড়াল বার্ড ফ্লু, উদ্বেগ বাড়ছে মহারাষ্ট্র, বিহারে

আজকাল ওয়েবডেস্ক: অতিমারির ধাক্কায় এমনিতেই উথাল-পাথাল সময়ের মধ্যে দিয়ে পার করছেন সাধারণ মানুষ।

করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসতে না আসতেই নতুন করে আতঙ্ক ছড়াল বার্ড ফ্লু। ২০০৬ সালে মহারাষ্ট্রেই প্রথম এই ভাইরাসের সংক্রমণের খোঁজ মেলে। এবার আবারও মহারাষ্ট্রেই মিলল এইচফাইভএনওয়ান ভাইরাসের হদিশ। মহারাষ্ট্রের মতো বিহারেও এই ভাইরাসের সংক্রমণের খবর পাওয়া গিয়েছে। তবে প্রশাসনের তরফে এখনই আতঙ্কিত হওয়ার মতো কিছু নেই বলেই জানানো হয়েছে। 
সূত্র থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী, বার্ড ফ্লুর সংক্রমণের ঝুঁকি কমাতেই ২৫ হাজার মুরগিকে মেরে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মুম্বইয়ের থানের স্থানীয় প্রশাসন। থানের শাহপুর তহসিলের অন্তর্গত ভেহলি গ্রামে আচমকাই একসঙ্গে ১০০টি মুরগির মৃত্যু হয়। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে থানের জেলাশাসক রাজেশ জে নার্ভেকর জেলার পশুপালন বিভাগকে ইতিমধ্যেই নির্দেশ দিয়েছেন। সেখানকার মৃত পাখির নমুনা পুণের এক ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হয়। নমুনা পরীক্ষার পর জানা গেছে, বার্ড ফ্লুর সংক্রমণেই মৃত ওই পাখিগুলো। এরপরই কালিংয়ের নির্দেশ দেয় প্রশাসন। থানের ওই পোলট্রি ফার্মের এক কিলোমিটারের মধ্যে প্রায় ২৫ হাজার পাখিকে মেরে ফেলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 
মহারাষ্ট্রের মতো বিহারের এক পোলট্রি ফার্মেও বার্ড ফ্লুর সংক্রমণে মৃত বহু পাখি। ১৬ ফেব্রুয়ারি পাটনার ওই ফার্মে ৩ হাজার ৮৫৯টি মুরগির মধ্যে ৭৮৭টি মুরগি মারা গেছে ভাইরাসের সংক্রমণে। জানুয়ারির মাঝামাঝি সময় থেকেই মৃত পাখির সংখ্যা বাড়ছিল সেই ফার্মে। পাখিগুলোর নমুনা পরীক্ষা করে দেখ যায়, বার্ড ফ্লুর সংক্রমণের জেরেই মৃত তারা। 

 

আরও পড়ুন: স্বস্তি! দেশে আরও কমল দৈনিক সংক্রমণ, একদিনে করোনায় বলি ২০৬ 

আকর্ষণীয় খবর