Shahrukh: প্রমোদতরীতে ছিলেনই না Aryan, দাবি আইনজীবীর, যদিও জামিন অধরাই

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ২ অক্টোবর যে প্রমোদতরীতে এনসিবি তল্লাশি চালিয়েছিল, তাতে ছিলেনই না আরিয়ান। তাই তাঁর বিরুদ্ধে মাদক পাচার, সেবনের অভিযোগ ‘‌অবাস্তব’‌। আদালতে আজ এই দাবিই করলেন আরিয়ানের আইনজীবী। যদিও শুনানি শেষ হল না। তাই আজও মিলল না জামিন। কাল ফের মাদক মামলায় আরিয়ান ও তাঁর দুই সঙ্গির জামিনের শুনানি হবে।
আরিয়ানের হয়ে আদালতে সওয়াল করলেন অমিত দেশাই। তিনি বলেন, এনসিবি যখন গোয়াগামী প্রমোদতরীতে তল্লাশি শুরু করেছে, তখন সেখানে পৌঁছননি আরিয়ান। তাঁর চেক ইনই হয়নি। তাছাড়া তিনি কখনওই মাদক নেননি। তাঁর কাছ থেকে সেই রাতে কোনও মাদক পাওয়া যায়নি। তাই ‘‌বেআইনি মাদক পাচারের অভিযোগ অবাস্তব’‌। 
আইনজীবী অমিত দেশাই এও বললেন, আরিয়ানের কাছে কোনও নগদ টাকা ছিল না। তাই পরে ওই প্রমোদতরীতে তাঁর মাদক কেনা সম্ভবও নয়। এনসিবি পাল্টা অভিযোগ করেছে, জেরায় আরিয়ান নিজেই স্বীকার করেছেন, যে প্রমোদতরীতে তিনি চরস নিতেন। সেই চরস রাখা ছিল বন্ধু আরবাজ মার্চেন্টের কাছে। এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন দেশাই। বলেছেন, ‘‌এনসিবি নিজেদের হেপাজতে চাপ দিয়ে এসব বয়ান দিতে বাধ্য করে।’‌ 
২ অক্টোবর প্রমোদতরীতে তল্লাশির পরেই আটক হন আরিয়ান। কিন্তু তাঁর সঙ্গি আরবাজ, মুনমুন সহ বাকি সাত জনকে আটক করা হয় পরের দিন ৩ অক্টোবর। অমিত দেশাইয়ের যুক্তি, এই মামলায় জোর করেই আরিয়ানকে টেনে আনা হয়েছে। এক্ষেত্রে এনসিবি ‘‌কাট–পেস্ট’‌–এর কাজ করেছে।