দীপেন গুপ্ত, পুরুলিয়া: মোরগ লড়াইয়ের আসরে গিয়ে মোরগের পায়ের কায়েত (‌লড়াইয়ে পরানো লোহার ধারালো অস্ত্র)‌ লেগে রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করার পর মারা গেলেন এক যুবক। মৃতের নাম অসীম মাহাতো (‌৩০)‌। বাড়ি কাশীপুর থানার রুদড়া গ্রামে। দাদা স্বপনকুমার মাহাতো বলেন, ‘হুড়ার রুদড়া গ্রামে একটি বিরাট মোরগ লড়াইয়ের আসর বসেছিল। সেখানে আমার ভাই গিয়েছিল। মোরগ লড়াইয়ের আখড়া থেকে বের হওয়ার সময় একটি মোরগের কায়েত এসে লাগে ভাইয়ের ডান পায়ের হাঁটুর নীচে। দীর্ঘক্ষণ ওখানে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে ছিল। এতবড় মোরগ লড়াইয়ের আসর হলেও ছিল না কোনও প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা। দীর্ঘক্ষণ পর আমার আরেক ভাই বিবেক মাহাতো তাকে উদ্ধার করে হুড়া হাসপাতালে নিয়ে যায় মোটরবাইকে করে। সেখানের চিকিৎসকরা পুরুলিয়া নিয়ে আসার কথা বলেন। পুরুলিয়া নিয়ে আসার পর চিকিৎসা শুরুর কিছুক্ষণ পর মারা যায় ভাই।’‌ তিনি অভিযোগ করেন, ‘‌ওই কায়েত যেভাবে লেগেছিল তাতে মারা যেত না। চিকিৎসকদের সন্দেহ কায়েতে কোনও বিষ মেশানো ছিল। বিষক্রিয়ার ফলেই মারা গেছে ভাই।’‌ পুলিশ দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে।

জনপ্রিয়

Back To Top