আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ শীতের আয়ু অবশ্য বেশ ছোট। সোমবার সকাল পর্যন্ত ঠান্ডার দাপট থাকবে। তারপর ঠান্ডা আর নেই। পশ্চিমি ঝঞ্ঝার প্রভাবে ফের মেঘলা হয়ে যাবে আকাশ। বৃষ্টিও হতে পারে সরস্বতী পুজোয় সে কথা আগেই জানিয়েছিল আবহাওয়া দপ্তর। রাজ্যজুড়ে হাড় কাঁপানো ঠান্ডা অনুভূত হলেও রবিবার শুধুমাত্র দার্জিলিং জেলায় বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। 
আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, সাম্প্রতিক ঝঞ্ঝাটি সরে যেতেই শুক্রবার সন্ধ্যার পর থেকে শুরু হয়ে যায় উত্তুরে হাওয়া। তার হাত ধরেই মাঘের সর্বাধিক পারদ পতন হয়েছে। আলিপুরের পারদ নেমে যায় ১২.০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। জেলায় ঠান্ডা আরও বেশি। কালিম্পংয়ের তাপমাত্রা নামে পাঁচ ডিগ্রিতে। পুরুলিয়া, বীরভূম, পশ্চিম বর্ধমানের বেশ কয়েকটি জায়গায় পারদ নেমে যায় সাত ডিগ্রিতে। উত্তর, মধ্য, পূর্ব ভারত জুড়েও দাপট বেড়েছে ঠান্ডার। দিল্লির তাপমাত্রা নেমেছে পাঁচ ডিগ্রির নীচে। তবে সোমবার থেকে সামান্য বাড়বে তাপমাত্রা।
আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, যদিও আরও একটি ঝঞ্ঝা আসছে। তার প্রভাবে ফের গায়েব হবে ঠান্ডা। সরস্বতী পুজোর সময় কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৭–১৮ ডিগ্রিতে পৌঁছতে পারে। সোমবারই পশ্চিমী ঝঞ্ঝা ঢুকছে জম্মু–কাশ্মীরে। মঙ্গলবার থেকে বৃহস্পতিবার রাজ্যে বৃষ্টির পূর্বাভাস দিনের তাপমাত্রাও বেড়ে ২৭ ডিগ্রির আশপাশে পৌঁছে যেতে পারে। মঙ্গলবার–বুধবার হালকা বৃষ্টিরও সম্ভাবনা। রবিবার কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২.৫ ডিগ্রি থাকবে। মঙ্গলবার থেকে জম্মু–কাশ্মীর, হিমাচলপ্রদেশ, উত্তরাখণ্ডে ব্যাপক তুষারপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। দিল্লি, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, রাজস্থান, চন্ডিগড়, উত্তরপ্রদেশ মধ্যপ্রদেশ বিহারে ২৮ ও ২৯ জানুয়ারি বজ্রবিদ্যুৎ–সহ বৃষ্টি এবং কোথাও কোথাও শিলাবৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। 
 

জনপ্রিয়

Back To Top