TMC: 'মমতা ব্যানার্জির হৃদয় কেউ রক্তাক্ত করবেন না', কাতর আবেদন গৌতম দেবের

আজকাল ওয়েবডেস্ক: নিষ্ক্রিয় হয়ে থাকা তৃণমূল কর্মীদের বিবেকে নাড়া দিলেন গৌতম দেব। বললেন, 'আমরা সবাই মমতা ব্যানার্জির দল করি। আর দল থাকলে আমরা থাকব। এখন নির্বাচন এসেছে। নির্বাচন যুদ্ধের মতো। এই যুদ্ধ মমতা ব্যানার্জির যুদ্ধ। আর মমতা ব্যানার্জি আমাদের মা। তাই মায়ের বুকে কেউ ছুড়ি মেরে রক্তাক্ত করবেন না। আমি আবেদন করছি মান-অভিমান ভুলে আপনারা কাজে নামুন।' 

 

আসন্ন পুর নির্বাচন উপলক্ষে শনিবার ময়নাগুড়িতে প্রচারে গিয়েছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা শিলিগুড়ির মেয়র গৌতম দেব। এদিন বিকেলে তিনি ময়নাগুড়িতে প্রচারে রীতিমতো ঝড় তোলেন। বেশ কয়েকটি ওয়ার্ডের জনসভা ও পথসভায় যোগ দেন তিনি। এদিনের প্রচারে তিনি কীভাবে ময়নাগুড়ির মানুষের পুরসভা গঠনের আবেগ মুখ্যমন্ত্রীর কাছে পৌঁছে দিয়েছিলেন তা পথসভায় বলেন। একইসঙ্গে মানুষের আবেদনে সারা দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী কীভাবে পুরসভা গঠনে উদ্যোগী হলেন তাও তিনি এদিনের প্রচারে তুলে ধরেন। ১৭ ষটি ওয়ার্ড নিয়ে নবগঠিত ময়নাগুড়ি পুরসভায় আগামী দিনে কীভাবে রাজ্য সরকার পরিষেবা দিতে চলেছে তার ফিরিস্তি তুলে ধরেন তিনি। 

এরপরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে গৌতম দেব বলেন ময়নাগুড়িতে আগামী দিনে পরিষেবা দিতে কিছু কর্মী নিয়োগ হবে।

পানীয় জল, পথ-বাতি, রাস্তা, ড্রেন সহ বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে সুন্দর পরিকল্পনা করে কাজ করা হবে। নিষ্ক্রিয় কর্মী প্রসঙ্গে তিনি বলেন, 'কে প্রার্থী হয়েছেন আর কে হতে পারেননি তা আমি জানি না। কিন্তু দল যাঁকে প্রতীক দিয়েছে তিনি দলীয় প্রার্থী। আর নির্বাচন অনেকটা যুদ্ধের মতো। তাই কোনও নির্বাচনকে ছোট করে দেখা উচিৎ নয়। এই যুদ্ধ মমতা ব্যানার্জির যুদ্ধ। আর মমতা ব্যানার্জি আমাদের মা। তাই মায়ের হৃদয়ে কেউ ছুড়ি মেরে রক্তাক্ত করবেন না। সকলে মান-অভিমান ভুলে কাজে নামুন।' 

ময়নাগুড়ির বেশ কিছু ওয়ার্ডের প্রার্থী দলীয় কর্মীদের পছন্দ হয়নি। তালিকা প্রকাশ হবার পর ক্ষোভ চরমে ওঠে। কর্মীদের ক্ষোভ সামাল দিতে না পেরে নির্বাচন কমিটির চেয়ারম্যান পদ থেকে ইস্তফা দিতে চেয়ে জেলা নেতৃত্বকে চিঠি দিয়েছিলেন ময়নাগুড়ি প্রাক্তন বিধায়ক অনন্তদেব অধিকারী। পরে বিষয়টি নিয়ে ধামাচাপা দিলেও দ্বন্দ্ব রয়ে গেছে তৃণমূলের অন্দরে। তাই নির্বাচনের সাত দিন আগেও বিভিন্ন ওয়ার্ডে বেশ কিছু কর্মী নিষ্ক্রিয় হয়ে রয়েছেন। এবার সেই মান-অভিমান মেটাতে গৌতম দেব এমন মন্তব্য করলেন বলে ধারণা রাজনৈতিক ওয়াকিবহাল মহলের। 

আরও পড়ুন: বিয়ের আগেই 'হবু স্বামী' প্রসেনজিতের বাড়িতে ঋতুপর্ণা! প্রকাশ্যে ছবি 

আকর্ষণীয় খবর