আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে রাজ্যের ২ মন্ত্রী এবং এক বিধায়ককে জানালেন বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান ব্যানার্জি। রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখার্জি এবং কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্রকে আজ সম্পূর্ণ বেআইনি ভাবে গ্রেপ্তার করল সিবিআই আধিকারিকরা। এ প্রসঙ্গে বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান ব্যানার্জি বলেন, ‘‌কলকাতা হাইকোর্ট আমার কাছে জানতে চেয়েছিল, কাউকে গ্রেপ্তার করার ক্ষেত্রে অধ্যক্ষের অনুমতি নেওয়া হয়েছে কিনা। আমি স্পষ্ট জানিয়েছিলাম যে আমাদের সঙ্গে কোনও যোগাযোগ নেই। এ বিষয়ে আমি কোনও চিঠিও পাইনি। আমার কাছে এ বিষয়ে সিবিআই আধিকারিকরা কিছু জানতেও চায়নি। মাসখানেক ধরে হাইকোর্টে এই নারদ মামলার শুনানি চলছিল। আমরা জানিয়ে দিয়েছিলাম,আমাদের কাছে কোনও রকম অনুমতি চাওয়া হয়নি তাই এই গ্রেপ্তার সম্পূর্ণ বেআইনি।’‌ এ প্রসঙ্গে বিমান ব্যানার্জির আরও সংযোজন, হাইকোর্ট যেখানে বলেছিল বিধানসভার অধ্যক্ষের অনুমতি নিতে সেখানে আমার অনুমতি ছাড়াই রাজ্যপাল আচমকাই অনুমতি দিয়ে দিলেন গ্রেপ্তার করার ক্ষেত্রে। বিধানসভার অধ্যক্ষ  পদে কাজ করা সত্ত্বেও আমার অনুমতি নেওয়া হল না। এ বিষয়ে আমি বিস্মিত। রাজ্যপাল এ ধরণের কাজ করে সংবিধানকে অপমান করছেন। আর আজকে যেভাবে সিবিআই গ্রেপ্তার করল রাজ্যের মন্ত্রী এবং বিধায়ককে তা বেআইনি। এ ধরণের গ্রেপ্তারির তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। প্রসঙ্গত, নারদ মামলায় ফিরহাদ হাকিমদের গ্রেপ্তারির প্রতিবাদে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে নিজাম প্যালেসেই বসে রয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির দাবি, ‘‌আমাকেও গ্রেপ্তার করতে হবে, কিন্তু বেআইনিভাবে কাউকে গ্রেপ্তার করা চলবে না। অগণতান্ত্রিক ভাবে যেভাবে ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখার্জি, মদন মিত্রদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে তা মানছি না। অবিলম্বে ওদের ছেড়ে দেওয়া হোক। নয়তো আমি নিজাম প্যালেস ছেড়ে কোথাও যাব না। সিবিআই-কে পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন মমতা ব্যানার্জি।’‌ নিজাম প্যালেসের সামনে ইতিমধ্যেই চলছে তৃণমূলের কর্মী-‌সমর্থকদের বিক্ষোভ। পাল্টা তৃণমূলের দাবি, নারদ কাণ্ডে গ্রেপ্তার করা হোক বিজেপির মুকুল রায়, শুভেন্দু অধিকারীদের। 

জনপ্রিয়

Back To Top