প্রিয়দর্শী বন্দ্যোপাধ্যায়, উদয় বসু: বুধবার রাতে আগুনে ভস্মীভূত হয়ে গেল হাওড়ার টিকিয়াপাড়ার একটি গুদাম। একইভাবে আগুনে পুড়ে যায় উত্তর ২৪ পরগনার কাঁচড়াপাড়ার বিবেকানন্দ মার্কেট। মার্কেটের দোকান ও মালপত্র পুড়ে যাওয়ায় চরম ক্ষতির মুখে ব্যবসায়ীরা। 
বুধবার রাতে আগুন লাগে টিকিয়াপাড়ায় একটি নেল পালিশের গুদামে। পুলিশ ও দমকল সূত্রে খবর, প্রচুর দাহ্যবস্তু মজুত থাকায় নিমেষেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে গোটা গুদাম জুড়ে। দমকলের ৪টি ইঞ্জিন ঘণ্টা তিনেকের চেষ্টায় ভোর ৪টে নাগাদ আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে ভস্মীভূত হয়ে যায় পুরো গুদাম। তবে অগ্নিকাণ্ডে হতাহতের কোনও খবর নেই। শর্টসার্কিট নাকি অন্য কোনও কারণে আগুন, তা খতিয়ে দেখছে দমকল কর্তৃপক্ষ। গুদামে অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা যথাযথ ছিল কি না তাও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। গুদাম মালিকের খোঁজ করছে পুলিশ।
অন্যদিকে, বুধবার রাত আড়াইটে নাগাদ বিধ্বংসী আগুন লাগে কাঁচড়াপাড়ার বিবেকানন্দ মার্কেটে। কয়েক দিন আগেও চৈত্র সেল উপলক্ষ্যে জমজমাট ছিল এই বাজার। পয়লা বৈশাখের দিন সাধ্যমতো দোকানগুলি সাজিয়েছিলেন ব্যবসায়ীরা।  খদ্দেরদের আপ্যায়নেরও ব্যবস্থা করেছিলেন। বুধবার রাতে আগুন লাগার খবরে ছুটে আসেন দমকলকর্মীরা। ছুটে আসেন ব্যবসায়ীরাও। ৭টি ইঞ্জিন টানা ১০ ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন আয়ত্তে আনে। ততক্ষণে ব্যবসায়ীদের চোখের সামনেই পুড়ে ছাই হয়ে যায় প্রায় ১৫০টি দোকান। পুড়ে যায় দোকানের মালপত্রও। কীভাবে আগুন লাগল সেনিয়ে তদন্ত করবে বীজপুর থানার পুলিশ। আগুনের খবর পেয়ে ছুটে আসেন বীজপুরের বিধায়ক শুভ্রাংশু রায়, কাঁচরাপাড়ার পুরপ্রধান সুদামা রায়। ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দিয়েছেন তাঁরা। 

পুড়ে ছাই কাঁচড়াপাড়ার বিবেকানন্দ মার্কেট। ছবি:‌ ভবতোষ চক্রবর্তী

জনপ্রিয়

Back To Top