বিজয়প্রকাশ দাস, পূর্ব বর্ধমান, ১৭ জুন- ‘জয় শ্রীরাম’ বলে বিজেপি–র পতাকা হাতে নিয়ে তৃণমূল কার্যালয়ে হামলার অভিযোগ উঠল। শক্তিগড় থানার হাটগোবিন্দপুরে সোমবার সকালে একুশে জুলাইকে সামনে রেখে সভা করে তৃণমূল। তারপর হঠাৎ ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দিতে দিতে কয়েকজন দুষ্কৃতী অফিসের ভেতর ঢুকে টিভি, আসবাবপত্র, আলমারি, মনীষীদের ছবি ভেঙে চুরমার করে দেয়। তৃণমূলের পতাকা পুড়িয়ে দেওয়া হয়। টাঙিয়ে দেওয়া হয় বিজেপি–র পতাকা। তৃণমূল কর্মীরা বাধা দেওয়ায় তঁাদের বেধড়ক মারধর করা হয়। 
খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান বর্ধমান উত্তর বিধানসভার বিধায়ক নিশীথ মালিক। তিনি সঙ্গে সঙ্গে দলের রাজ্য নেতৃত্ব, জেলা নেতৃত্ব, জেলা সভাপতি তথা মন্ত্রী স্বপন দেবনাথকে ঘটনার বিস্তারিত জানান। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে শক্তিগড় থানায় অভিযোগ জানানো হয়। 
বিধায়ক নিশীথ মালিক পুলিশের কাছে অভিযোগ করে বলেন, ‘‌এদিন সকালে একুশে জুলাইকে সামনে রেখে একটি সভা হয়েছে হাটগোবিন্দপুরের বর্ধমান দু’নম্বর ব্লকের তৃণমূল কার্যালয়ে। সভার শেষে সকলে ফিরে গেলেও জনা চারেক দলীয় কর্মী অফিসে বসেছিলেন। তখন অতর্কিতে ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দিয়ে সিপিএমের লোকেরা হাতে বিজেপি–র পতাকা নিয়ে অফিসে ঢুকে ভাঙচুর শুরু করে। উপস্থিত তৃণমূল কর্মীরা বাধা দিতে গেলে বেধড়ক মারধর করা হয়। অফিসের ভেতরে থাকা টিভি, মনীষীদের ছবি, আসবাবপত্র সমস্ত কিছু ভেঙে চুরমার করে দেয় তারা। দলের পতাকা পুড়িয়ে দেয়। বিজেপি–র পতাকা লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে। অফিসের বাইরে লাগানো গ্লোসাইন বোর্ড যাতে দলের কার্যালয়ের নাম লেখা ছিল সেটি নামিয়ে ভেঙে চুরমার করে দেওয়া হয়।’‌
তিনি আরও অভিযোগ করেন, ‘‌আমি তখন বিশেষ কাজে জেলা অফিসে ছিলাম। সেখানেই খবর পাই আমাদের অফিসে হামলা চালিয়েছে সিপিএম আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। যদিও তাদের হাতে ছিল বিজেপি–র পতাকা। তারা মুখে ‘জয় শ্রীরাম’ বলছিল। সব কাজ ফেলে আমি ঘটনাস্থলে ছুটে আসি। গিয়ে দেখি, আমাদের অফিস ভেঙে চুরমার করে দেওয়া হয়েছে। এরপরই পুলিশের কাছে আমরা সিপিএম আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধেই অভিযোগ দায়ের করি।’‌ তিনি জানান, মন্ত্রী স্বপন দেবনাথের সঙ্গে কথা বলে সেই অনুযায়ী পরবর্তী কার্মসূচি নেওয়া হবে। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। বেশ কয়েকজনকে আটকও করা হয়েছে। এদিন হাটবার ছিল বলে এই ঘটনার পর এলাকায় ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। পুলিশ এসে পরিস্থিতি সামাল দেয়।‌

শক্তিগড়ের হাটগোবিন্দপুরে ভাঙচুর হওয়া তৃণমূল কার্যালয়। ছবি: প্রতিবেদক

জনপ্রিয়

Back To Top