আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ একে সিগন্যালিংয়ের কারণে বাতিল একাধিক ট্রেন। তার উপর ভুল ঘোষণা। এই দুই কারণে শনিবার সকাল থেকে উত্তাল হয়ে উঠল সোদপুর স্টেশন। সকাল থেকে ট্রেন অবরোধে নিত্যযাত্রীরা। ভাঙচুর করা হল স্টেশনে। আর এর ফলে কার্যত বিপর্যস্ত শিয়ালদহ মেন শাখার ট্রেন চলাচল। একাধিক স্টেশনে দাঁড়িয়ে ট্রেন। স্টেশনে ভিড় বেড়ে চলেছে নিত্যযাত্রীদের। কিন্তু ট্রেনের দেখা নেই। প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা ট্রেন অবরোধ ছিল। তবে ইতিমধ্যে সোদপুর স্টেশনের স্টেশন মাস্টারকে বরখাস্ত করার ইঙ্গিতও দিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ। এছাড়া ঘোষণার সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের উপরও নেমে আসতে পারে খাঁড়া। 
শিয়ালদহ মেন লাইনে বারাকপুর এবং ইছাপুর স্টেশনের মাঝে চলছে স্বয়ংক্রিয় সিগন্যাল বসানোর কাজ। তাই আগামী সোমবার পর্যন্ত বাতিল করা হয়েছে ১৫৮টি লোকাল ট্রেন। এর মধ্যে শুক্রবার সন্ধ্যায় আবার দমদম ও বিধাননগর স্টেশনে মাঝে ওভারহেড তার ছিঁড়ে শিয়ালদহ মেন লাইনে ব্যাহত হয় ট্রেন চলাচল। ফলে যাত্রীদের ক্ষোভ ছিলই। আর এসবের বহিঃপ্রকাশ ঘটল শনিবার সকালে সোদপুর স্টেশনের ঘটনায়। ঠিক কী হয়েছিল?‌ জানা গিয়েছে, এদিন সকালে ফের সোদপুর প্ল্যাটফর্মে ভুল ঘোষণা হয়। স্টেশনে ভিড় প্রচণ্ড বেশি ছিল। এই অবস্থায় ঘোষণা করা হয় গ্যালপিং রাণাঘাট লোকাল সোদপুরে দাঁড়াবে। কিন্তু ট্রেন আসতে দেরি করে এবং সোদপুরে না থেমেই চলে যায়। আর এরপরেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন সাধারণ মানুষ। শুরু হয় বিক্ষোভ। ভাঙচুর চালানো হয় স্টেশনের কেবিন রুমে। আগুন ধরানোর চেষ্টাও করা হয়। শুরু হয় অবরোধ। ফলে পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায় ট্রেন চলাচল।  এদিকে, এরপরই রেলের তরফ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে সিগন্যালিংয়ের কাজ না মেটা পর্যন্ত আগামী সোমবার পর্যন্ত মেন লাইনে সমস্ত গ্যালপিং ট্রেন সব স্টেশনে দাঁড়াবে। 

জনপ্রিয়

Back To Top