TMC Leader: ‌তৃণমূল নেতাকে রাস্তায় মারধর, ভিডিও ভাইরাল 

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মুর্শিদাবাদের নবগ্রাম থানা এলাকার এক মহিলা তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীকে কুপ্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল তৃণমূল পরিচালিত নবগ্রাম পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য এবং তৃণমূলের কিষান খেতমজুর সমিতির জঙ্গিপুর সাংগঠনিক জেলার সভাপতি সন্ধিপদ মণ্ডলের বিরুদ্ধে।

যদিও এই ঘটনার সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। জানা গেছে, সন্ধিপদ মণ্ডল কিছুদিন আগে নবগ্রাম থেকে লালবাগগামী রাস্তা ধরে পলসন্ডাতে তৃণমূল কংগ্রেস পার্টি অফিসের সামনে আসার পর ওই মহিলা তাঁকে প্রকাশ্য রাস্তায় জামার কলার ধরে মারধর করেন। ওই তৃণমূল নেতার সঙ্গে মহিলার প্রকাশ্যে রাস্তায় হাতাহাতির ভিডিও ভাইরাল হতেই তোলপাড় পড়েছে গোটা জেলা জুড়ে। ওই মহিলা জানিয়েছেন, ঘটনার পরে তিনি নবগ্রাম থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। তবে পুলিশ এখনও তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেয়নি। তাই তিনি প্রাণ সংশয়ের আশঙ্কা করছেন। যদিও নবগ্রাম থানার তরফে দাবি করা হয়েছে অভিযুক্ত তৃণমুল নেতার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির একাধিক ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা সন্ধিপদ মণ্ডল জানিয়েছেন তার বিরুদ্ধে চক্রান্ত হয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, অভিযোগকারী ওই মহিলার বাড়ি নবগ্রামের জুলফিয়া গ্রামে। তার সঙ্গে পুনিয়া গ্রামের এক যুবকের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু সম্প্রতি সেই সম্পর্ক ভেঙে যায়। 
গত ১ জুলাই ওই মহিলা এক ব্যক্তির মোটরসাইকেল করে কোথাও যাওয়ার সময় পুনিয়ার ওই যুবককে রাস্তায় দেখতে পান। সূত্রের খবর সেই সময় ওই মহিলা পুনিয়ার যুবককে উদ্দেশ্য করে কিছু মন্তব্য করেন। ঠিক সেইসময় ওই এলাকা দিয়ে যাচ্ছিলেন সন্ধিপদ মণ্ডল। সন্ধিপদবাবু মনে করেন ওই মন্তব্য তাঁকে উদ্দেশ্য করে করা হয়েছে। তিনি এই ঘটনার প্রতিবাদ করলে ওই মহিলা তৃণমূল কর্মীর সঙ্গে তাঁর বিবাদ বেঁধে যায় এবং ওই মহিলা তাঁকে প্রকাশ্য রাস্তায় মারতে থাকেন। সেইসময় তার সঙ্গে থাকা পুরুষ সঙ্গী গোটা ঘটনাটি ভিডিও করে নেন। সোমবার সকাল থেকে সোস্যাল মিডিয়ায় সেই ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। 
তৃণমূল কংগ্রেসের জঙ্গিপুর সাংগঠনিক জেলার চেয়ারম্যান কানাই চন্দ্র মণ্ডল বলেন, ‘‌প্রাথমিকভাবে আমরা জানতে পেরেছি গোটা ঘটনায় সন্ধিপদর কোনও দোষ ছিল না। তবুও পুলিশ গোটা ঘটনাটি তদন্ত করে দেখুক।’‌ 

আরও পড়ুন:‌ পাঞ্জাবি গায়ক হত্যাকাণ্ডে ধৃত শার্প শুটার অঙ্কিত, আততায়ীদের আশ্রয় দেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার আরও এক


 

আকর্ষণীয় খবর