Theft: পঞ্চায়েত ‘‌সচিবজি’র‌ ঘরে চুরি 

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ এবার চুরি পঞ্চায়েত ‘‌সচিবজি’‌র ঘরেই।

তবে এটি সেই বিখ্যাত ‘‌ফুলেরা পঞ্চায়েত’‌ নয় আর ‘‌সচিবজি’‌ও অভিষেক ত্রিপাঠী নন। শুনতে অবাক লাগলেও শুক্রবার এমন ঘটনাই ঘটেছে। জানা গেছে, পঞ্চায়েতের নাম হারুয়া। মুর্শিদাবাদের সুতি–১ ব্লকে অবস্থিত। আর পঞ্চায়েতের সচিবের নাম অমিত সিংহ। 
শুক্রবার রাজ্য সরকারের ‘‌দুয়ারে সরকার’‌ ক্যাম্প চলায় হারুয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের বেশিরভাগ কর্মী ওই ক্যাম্পে উপস্থিত ছিলেন। গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে উপস্থিত ছিলেন কেবল ‘‌সচিবজি’‌ অমিত সিংহ এবং দু’‌জন স্টাফ। 
সূত্রের খবর ‘‌সচিবজি’‌ যখন অন্য একটি ঘরে কিছু কাজে ব্যস্ত ছিলেন সেই সময় একজন বোরখা পরে তাঁর ঘরে ঢোকেন। তারপর ‘‌সচিবজি’‌র ঘরের আলমারি খোলার চেষ্টা করেন। কিন্তু আলমারির লক থাকায় তা খুলতে না পেরে ‘‌সচিবজি’‌র টেবিলে থাকা তিনটি দরকারি ফাইল নিয়ে চম্পট দেন। এই ঘটনার খবর চাউর হতে দ্রুত এলাকায় পৌঁছায় সুতি থানার পুলিশ। কিন্তু এখনও ‘‌সচিবজি’‌র ঘর থেকে ফাইল চুরি করে নিয়ে পালানো সেই অজ্ঞাতপরিচয় বোরখা পরিহিত ব্যক্তির সন্ধান পাওয়া যায়নি। 
হারুয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের সচিব বছর আটত্রিশের অমিত সিংহ গত প্রায় সাড়ে তিন বছর ধরে ওই অফিসে চাকরি করছেন। তার বাড়ি সুতির দফাহাটে। রোজ প্রায় ২০–২৫ কিলোমিটার বাইক চালিয়ে সচিব নিজের অফিসে যান। 
হারুয়া পঞ্চায়েতের সচিব অমিত সিংহ বলেন, ‘‌প্রতিদিনের মত আজও আমি অফিসে এসেছিলাম। কিন্তু আজ দুয়ারে সরকার ক্যাম্প থাকার জন্য বেশিরভাগ কর্মী সেই ক্যাম্পে গিয়েছিলেন। ফলে অফিস অনেকটাই ফাঁকা ছিল। সেই সুযোগে একজন বোরখা পরে আমার ঘরে ঢুকে টেবিলে রাখা তিনটি ফাইল নিয়ে চম্পট দিয়েছে। একটি ফাইলে কিছু ভাউচার, বাকি দুটি ফাইলে সার্ভিস রিটার্ন বই এবং টেন্ডার সংক্রান্ত কাগজ ছিল।’‌ সচিবের দাবি চোর একজন পুরুষ। 
অন্যদিকে ওটিটি প্ল্যাটফর্মে ওয়েব সিরিজের একনিষ্ট ভক্ত সুতি–১ ব্লকের বিডিও মহম্মদ এইচ এম রিয়াজুল হক বলেন, ‘‌ইতিমধ্যেই আমার পঞ্চায়েত ১ এবং ২ সিজিনের সবকটি এপিসোড দেখা শেষ। ওই সিরিজের মুখ্য চরিত্র ‘‌সচিবজি’‌র অভিনয় আমার মত প্রায় সকলের ভাল লেগেছে।’‌ 
বিডিও বলেন, ‘‌আমার নিজের ব্লকে পঞ্চায়েত ‘‌সচিবজি’‌র অফিসে চুরি হওয়াতে আমি খুব অবাক হয়েছি। ওই সচিবের বিরুদ্ধে হারুয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের কয়েকজন সদস্য দুর্নীতির লিখিত অভিযোগ আমার কাছে জমা করেছেন। পুলিশ তদন্ত করে দেখছে সেই অভিযোগগুলোর সঙ্গে চুরি যাওয়া ফাইলগুলোর কোনও সম্পর্ক রয়েছে কিনা।’‌ 

আরও পড়ুন:‌ ১ হাজার কর্মী ছাঁটাই করছে বিবিসি 


 


 

আকর্ষণীয় খবর