চন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়, পূর্বস্থলী, ১৩ জানুয়ারি- পূর্বস্থলীর দুটি ব্লকের পাশ দিয়ে বয়ে গিয়েছে ভাগীরথী। এখানে তিনটি জেটি তৈরি করবে রাজ্যের সেচ ও জলপথ পরিবহণ দপ্তর। ঘোষণা বিভাগীয় মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর। পূর্বস্থলীর শ্রীরামপুরে শুরু হয়েছে আন্তর্জাতিক লোকসংস্কৃতি উৎসব, কৃষি ও হস্তশিল্প মেলা। সেখানে রবিবার রাতে পূর্বস্থলীর জন্য এই সুখবর শোনালেন শুভেন্দু। ছিলেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, উজ্জ্বল বিশ্বাস, রত্না ঘোষ, বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়, পুণ্ডরীকাক্ষ সাহা, সুভাষ মণ্ডল, পূর্ব বর্ধমানের পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখার্জি, জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধাড়া প্রমুখ।
কৃষকরা রিভার লিফটিং পাম্প বা আরএলআইয়ের মাধ্যমে যাতে সারা বছর সেচের জল পান, তার জন্য বিশ্বব্যাঙ্কের তরফে ‘আদমি’ নামে একটি প্রকল্প চালু হবে। ২১ জানুয়ারি প্রথম ধাপে নন্দীগ্রাম থেকে ৬৩ কিমি এই প্রকল্পের সূচনা হবে। তিনটি জেটি তৈরির পাশাপাশি পূর্বস্থলীকে এই প্রকল্পের আওতায় আনার কথাও ঘোষণা করেন শুভেন্দু। তিনি বলেন, ‘‌এই প্রকল্পে নদী ও ছোট ছোট খাল সংস্কার করা হবে। তাতে বছরভর সেচের জল মিলবে।’ মন্ত্রীর ঘোষণায় খুশি এলাকার কৃষকরা। শুভেন্দু ইতিমধ্যেই জলপথ পরিবহণে যাত্রী নিরাপত্তার বিষয়টিকে অগ্রাধিকার দিতে কালনা, কাটোয়া, শান্তিপুর–সহ ভাগীরথীর বিভিন্ন ঘাটে ভেসেলের বন্দোবস্ত করেছেন। আন্তর্জাতিক লোক উৎসবে যোগ দিতে পেরে তিনি যে ‘ধন্য’, তা অকপটে স্বীকার করেছেন। এই উৎসবে দেশ–‌বিদেশ ও রাজ্য মিলিয়ে হাজার দুয়েকের কাছাকাছি লোকশিল্পী নিজেদের শৈলী প্রদর্শন করবেন। থাকছেন বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, নেপাল ও ভুটানের শিল্পীরা। থাকছে বাংলার ভাদু, টুসু, রনপা, ঝুমুর, কবিগান, লালনগীতি, পল্লীগীতি, আদিবাসী নৃত্য। সপ্তাহব্যাপী উৎসবের প্রত্যেকটি দিনকে ছাত্র ও যুব দিবস, নারী দিবস, আদিবাসী দিবস, শ্রমিক দিবস, স্বনির্ভর দিবস, শ্রমিক দিবস প্রভৃতি দিবসে ভাগ করা হয়েছে। সবমিলিয়ে রয়েছে ১১৫টি স্টল। উৎসব চলবে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত।  ‌      

 লোকসংস্কৃতি উৎসবে মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী ও স্বপন দেবনাথ। ছবি: প্রতিবেদক

জনপ্রিয়

Back To Top