যজ্ঞেশ্বর জানা, পটাশপুর: পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর জনসভাকে ঘিরে ব্যাপক উন্মাদনা দেখা গেল পটাশপুর, ভগবানপুর ও খেজুরিতে। মঙ্গলবার বিকেল থেকে সন্ধে পর্যন্ত কঁাথি লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী শিশির অধিকারীর সমর্থনে পরপর ৩টি জনসভা করে প্রচারে ঝড় তোলেন শুভেন্দু। শুরুতে পটাশপুরের পঁচেটগড়ের জনসভায় ভিড় কার্যত উপচে পড়ে। এছাড়া ভগবানপুরের মুগবেড়িয়া এবং খেজুরির বটতলার সভায়ও এলাকাবাসীর ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। প্রতিটি সভায় মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় বিধায়ক, ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের জনপ্রতিনিধি এবং নেতৃত্বরা। প্রতিটি সভাতে পরিবহণমন্ত্রী তীব্র আক্রমণ করেন কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে। 
পঁচেটগড়ের সভাতে বক্তব্য পেশ করার সময় মন্ত্রী বলেন, ‘‌বিজেপি–র নেতা–মন্ত্রীরা সত্যি কথা বলেন না। তারা ৫ বছরে কোনও প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেনি। তাই নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রচার করছে। কিন্তু গত সাত বছর ধরে মানুষের জন্য বহু কাজ করছে আমাদের সরকার। তাই এই নির্বাচনে কেন্দ্র–রাজ্যের কাজের তুলনা করে ভোট দেবেন আপনারা।’‌ 
কেন্দ্রীয় সরকারের একাধিক জনবিরোধী কাজের বিরোধিতা করে শুভেন্দু বলেন, ‘‌বিজেপি সরকারের আমলে নোটবন্দি, জিএসটি চালু হওয়ার ফলে ব্যবসায়ী থেকে সাধারণ মানুষ সকলে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। এই সরকারের আমলে মানুষের আমানতও লুট হয়ে গেছে। দেশবাসীর অচ্ছে দিন না এলেও বিজেপি–র অচ্ছে দিন এসেছে। তাই এই সরকারকে অপসারণ করতে হবে।’‌ বিজেপি–র বিরুদ্ধে সাম্প্ৰদায়িক বিভাজনের রাজনীতি করার অভিযোগও তোলেন পরিবহণমন্ত্রী। বলেন, ‘‌মানুষ সরকারের কাজ দেখে ভোট দেয়। কিন্তু বিজেপি কাজের কথা মানুষকে বলতে পারছে না। ওরা নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে ধর্মের কথা বলছে। দেশের সম্প্রীতি, ঐতিহ্য নষ্ট করে মানুষের মধ্যে বিভাজন তৈরি করতে চাইছে। ধর্মের ভিত্তিতে ভোট চাইছে বিজেপি। এখন আর বিদেশ থেকে কালো টাকা ফেরত এনে ১৫ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা বলছে না। গরিব মানুষ ও কৃষকের কথাও বলছে না। হিন্দুত্ব ও যুদ্ধ নিয়ে ভোট চাইছে।’‌ এদিন রাজ্য সরকারের একাধিক উন্নয়নের কথা তুলে ধরে শুভেন্দু বলেন, ‘‌তৃণমূলই একমাত্র দল যারা সারা বছর ধরেই মানুষের পাশে থাকেন। আগামীদিনে জেলার যাতে আরও উন্নয়ন হয়, সেই জন্য তৃণমূল প্রার্থীকে জয়ী করতে হবে।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top