রাজীব চক্রবর্তী, দিল্লি: বাংলাকে বঞ্চনার বিরুদ্ধে আবারও সরব তৃণমূল। এবার সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে। কলকাতা পোর্ট ট্রাস্ট, তাজপুর বন্দর, বাংলার রেল প্রকল্পে নামমাত্র বরাদ্দ ইত্যাদি বিষয়ে লিখিত জবাব চাইলেন তৃণমূল সাংসদরা। সেইসঙ্গে সংসদে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রহ্লাদ সিং প্যাটেল জম্মু–‌কাশ্মীরে পর্যটন বৃদ্ধির ভুয়ো তথ্য দিয়েছেন বলেও অভিযোগ তোলা হয়। তৃণমূল সাংসদদের দাবি, শুধু ঘোষণা নয়, প্রকল্পে বরাদ্দ ও সময়সীমা ঘোষণা করুক সরকার।
বুধবার সংসদের পর্যটন ও সংস্কৃতি, পরিবহণ এবং অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রকের সংশ্লিষ্ট স্থায়ী কমিটির বৈঠক ছিল। সূত্রের খবর, বৈঠকেই কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্ব এবং তথ্য গোপনের অভিযোগ তুলেছেন তৃণমূল সাংসদরা। সূত্রের খবর, এদিনের বৈঠকে তৃণমূলের রাজ্যসভার নেতা ডেরেক ও’‌ব্রায়েন বলেছেন, কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টে এক হাজার কোটির প্রকল্পে গত বাজেটে কেন্দ্রীয় সরকার বরাদ্দ করেছে মাত্র একশো কোটি। এবারের বাজেটে তিন হাজার কোটির প্রকল্পে দেওয়া হয়েছে মাত্র ৩০০ কোটি। এছাড়া তাজপুর বন্দর গড়তে কেন্দ্রের ৭৫ শতাংশ অংশীদারি থাকার কথা ছিল। কেন্দ্রীয় বরাদ্দ না পাওয়ায় রাজ্য সরকার পিপিপি মডেলে একাই সেই প্রকল্প গড়ছে। ইনল্যান্ড ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট অথরিটির ৭ হাজার কোটির প্রকল্পে বরাদ্দ হয়েছে ৬২৮ কোটি। বাজেট কার্যত ‌ফাঁকা ঘোষণা, অভিযোগ তৃণমূল সাংসদের। নিন্দা করা হয়েছে প্রজাতন্ত্র দিবসে কলকাতা বন্দরের ট্যাবলোতে হিন্দি গান বাজানোর। 
জানা গেছে, অসামরিক বিমান পরিবহণ সংক্রান্ত আলোচনায় কুণাল কামরার প্রসঙ্গ তোলেন ডেরেক। তাঁর দাবি, এই ব্যাপারে স্বতঃপ্রণোদিত পদক্ষেপ করা উচিত মন্ত্রকের। ওদিকে, গত ১৫ নভেম্বর রাজ্যসভায় সিপিএম সাংসদ করিমের এক প্রশ্নে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রহ্লাদ সিং প্যাটেল জম্মু-‌কাশ্মীরে পর্যটন বেড়েছে দাবি করে ভুয়ো তথ্য দিয়েছেন বলেও অভিযোগ তোলা হয়। এই সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য তুলে ধরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বিরুদ্ধে স্বাধিকার ভঙ্গের নোটিস আনছেন সিপিএম সাংসদ। মন্ত্রকেরই দেওয়া এক আরটিআই তথ্যকে হাতিয়ার করেছে বিরোধীরা। সূত্রের খবর, তৃণমূলের তরফে সরকারি তথ্যের ভিত্তিতে দেখানো হয়েছে, গত কয়েক মাসে জম্মু–‌‌কাশ্মীরে ৭১ শতাংশ পর্যটন কমেছে। 

জনপ্রিয়

Back To Top