আজকালের প্রতিবেদন
ধানবাদ থেকে দিঘা হয়ে বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত গড়ে উঠেছে একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা। উত্তর–পূর্ব উত্তরপ্রদেশে গড়ে উঠেছে একটি ঘূর্ণাবর্ত। এর পাশাপাশি সক্রিয় রয়েছে মৌসুমি হাওয়া। প্রবলভাবে সক্রিয় থাকা এই মৌসুমি হাওয়ার প্রভাবে বড় বড় মেঘের টুকরো ঢুকে আসছে এ রাজ্যে। সেই মেঘ গিয়ে ধাক্কা মারবে রাজ্যের উত্তরে হিমালয় পর্বতে। ঝরাবে প্রবল বৃষ্টি। মঙ্গল, বুধবারে বৃষ্টি তুলনায় কিছুটা কম হলেও বৃহস্পতি, শুক্রবারে সেখানে হতে পারে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি। বয়ে যাওয়া এই মেঘ বৃষ্টি ঝরাবে দক্ষিণবঙ্গেও। দুই বর্ধমান, নদিয়া, মুর্শিদাবাদে বৃহস্পতিবার হতে পারে বিক্ষিপ্ত ভারী বৃষ্টি। অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারি। সোমবার পূর্বাভাসে এমনটাই জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর।
আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের সহ–অধিকর্তা সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, সাধারণত উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গে একসঙ্গে বৃষ্টি হয় না। এবার কিন্তু মৌসুমি বায়ুর প্রবাহে চেনা সেই ছকে ছেদ পড়েছে। রাজ্যের দুই অংশেই একই সঙ্গে বৃষ্টি হয়ে চলেছে। প্রচুর জলীয় বাষ্প নিয়ে উত্তরবঙ্গের দিকে বয়ে চলা বড় মেঘের টুকরো যাওয়ার পথে দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টি ঝরিয়ে যাচ্ছে। হাওয়ায় বাড়িয়ে দিয়ে যাচ্ছে জোলো হাওয়া। যা জলীয় বাষ্পের সরবরাহ বজায় রেখে মৌসুমি হাওয়ার শক্তি বাড়িয়ে দিচ্ছে। দিনভর আকাশ মেঘলা থাকছে। মাঝেমধ্যে বৃষ্টি হচ্ছে।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top