আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ গরুর দুধে সোনা থাকে। একথা দিলীপ ঘোষের মুখে শুনেই বিশ্বাসযোগ্য মনে হয়েছে। তাই গরু বন্ধক রেখে ঋণ পেতে ছুটলেন ঋণদানকারী একটি সংস্থার অফিসে। সেখানে গিয়ে জানালেন যে তিনি নিজের গরু বন্ধক রেখে ঋণ চান। তা শুনেই অবাক ঋণদানকারী সংস্থা মানাপ্পুরম ফাইন্যান্স লিমিটেডের কর্মীরা। ঘটনাটি ঘটে ডানকুনি অঞ্চলে। ঘটনাটি ঘটার পরই দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। কানে যায় সংবাদমাধ্যমের। ওই ব্যক্তি সংবাদমাধ্যমে জানান, ‘‌আমি গরু বন্ধক রেখে ঋণ নিতে এসেছি। শুনেছি, গরুর দুধে সোনা পাওয়া যায়। গরু প্রতিপালন করেই আমার পরিবার চলে। এই ঋণ পেলে আমি ব্যবসা বাড়াতে পারব।’‌ বিজেপির রাজ্য সভাপতির ‘‌গরুর দুধে সোনা’ তত্ত্ব ইতিমধ্যেই ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। ‌দিলীপ বাবুর নয়া তত্ত্বে অনেকের যেমন চক্ষু চড়কগাছ হয়েছে, তেমনি বিশ্বাসও করে নিয়েছেন অনেকে। দিলীপ ঘোষের মন্তব্যের সমালোচনা করে গরলগাছা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মনোজ সিং জানিয়েছেন, ‘‌রোজ আমার অফিসে কেউ না কেউ গরু নিয়ে চলে আসছে। প্রত্যেকেই গরু বন্ধক রেখে টাকা ধার চাইছেন। জিজ্ঞেস করছেন, গরু বন্ধক রাখলে কত টাকা পাওয়া যাবে?‌’‌ 
‘গরুর দুধে সোনা’র হদিস দিয়ে ‘তোলপাড়’ ফেলে দিয়েছিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। দিলীপ ঘোষের সেই ‘তত্ত্ব’ ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় হাস্য-রসিকতার বিস্ফোরণ ঘটেছে। শুধু কি সোশ্যাল মিডিয়া? দলীয় সূত্রের খবর, বিজেপির অভ্যন্তরেও সমালোচিত হচ্ছেন তিনি। কেন এই ধরনের মন্তব্য করতে গেলেন– উঠেছে এমন প্রশ্নও। 

জনপ্রিয়

Back To Top