চন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় 
বোলপুর ৮ আগস্ট 

বিবাদের জেরে খুন হল বছর দু’‌য়ের এক শিশু। ঘটনাটি ঘটেছে বোলপুরের কাশীপুরে। জেঠিমা তাজমিন বিবি দেওরের ২ ‌বছরের ছেলে আতিফ খানকে শুক্রবার দুপুরে লজেন্স দেব বলে বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। তারপর ঘরের দরজা বন্ধ করে লোহার খিল দিয়ে আতিফের মাথায় আঘাত করে বলে অভিযোগ। অজ্ঞান হয়ে যায় শিশুটি। এরপর মৃত্যু নিশ্চিত করতে নাক–মুখে কাপড় বেঁধে ঢুকিয়ে দেয় ঘরের আলমারিতে। সেই সময় বাড়িতে ছিলেন না জ্যাঠা পিয়ার খান। খুনের ঘটনায় বোলপুর আদালত শনিবার জেঠিমা তাজমিন বিবিকে ৭ দিনের পুলিশ হেফাজতে পাঠিয়েছে।
শুক্রবার রাতেই তাজমিন বিবিকে কাশীপুর গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ৩০২ ও ২০১ ধারায় অভিযুক্ত করে তাকে আাদালতে তোলা হয়। জ্যাঠা পিয়ার খানকে এদিন সকালে পুলিশ আটক করে। তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগগুলিও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। শুক্রবার দুপুর থেকে মুরসেদ খানের ছেলে আতিফ খান নিখোঁজ ছিল। আশপাশের পুকুরঘাট থেকে শুরু করে পাড়াতে খোঁজাখুঁজি করা হয়। না পেয়ে বাড়িতে ফিরে শোকে ভেঙে পড়েন বাবা–মা। সেই সময় পাশের বড়িতে থাকা বৌদির আচরণে সন্দেহ হয় তাদের। খবর দেওয়া হয় পুলিশে। রাতে পুলিশ আসার আগেই খোঁজাখুঁজি করে মুরসেদ দাদা–বৌদির বাড়ির আলমারি থেকে উদ্ধার করে ছেলের মৃতদেহ। কেন খুন হতে হল দুধের শিশুকে? প্রাথমিক অনুমান, দাদা পিয়ার আলি খানের সঙ্গে ভাইয়ের বৌয়ের অবৈধ সম্পর্ক আছে, এমনটা মনে করত অভিযুক্ত। সেই আক্রোশেই এই খুন হতে পারে বলে মনে করছে তদন্তকারীরা। শিশুর মা শম্পা খাতুন অবশ্য জানিয়েছে, শুধু ঈর্ষার বশেই জা পরিকল্পিতভাবেই এই খুন করেছে।

জনপ্রিয়

Back To Top