আজকালের প্রতিবেদন: আজ, বুধবার রাজ্য জুড়ে ফের সম্পূর্ণ লকডাউন। এটাই আগস্ট মাসের প্রথম লকডাউন। সফল করতে সব রকম ব্যবস্থা নিয়েছে রাজ্য ও কলকাতা পুলিশ। সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত লকডাউন চলবে। বন্ধ থাকবে বিমান চলাচল। সকাল থেকেই কলকাতা–সহ রাজ্যের সর্বত্র যান চলাচল বন্ধ থাকবে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ পথে বেরোতে পারবেন না। বেরোলে দিতে হবে উপযুক্ত কারণের প্রমাণ। এদিকে, মঙ্গলবার থেকে আলিপুরদুয়ারে শুরু হয়েছে টানা ৫ দিনের লকডাউন।
লকডাউন উপেক্ষা করে রামজন্মভূমির শিলান্যাস উপলক্ষে বিভিন্ন জায়গায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে বিজেপি। বুধবার কোথাও যজ্ঞ, কোথাও পুজোর আয়োজন করেছে তারা। দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ হুমকির সুরে বলেছেন, লকডাউন কারণ দেখিয়ে তাঁদের অনুষ্ঠান আটকানোর চেষ্টা হলে ফল ভাল হবে না। দিলীপবাবুর এই হুমকির নিন্দা করেছেন তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়। তিনি বলেন, মানুষের স্বার্থে রাজ্য সরকার এই লকডাউন করছে। দিলীপবাবু ছায়ার সঙ্গে যুদ্ধ করতে চাইছেন। আমি দিলীপবাবুর কাছে আবেদন করছি, মানুষের স্বার্থেই লকডাউন মানুন। অশান্তির চেষ্টা করবেন না। 
লকডাউনে জরুরি পরিষেবা ছাড়া বাইরে বের হওয়া নিষিদ্ধ। সেই কারণে নজরদারি ব্যবস্থা মঙ্গলবার রাত থেকেই জোরদার করা হয়েছে। কলকাতায় ড্রোন উড়িয়ে চলবে নজরদারি। বেআইনি জমায়েত বা অকারণে বাইক, সাইকেল নিয়ে কেউ ঘোরাঘুরি করছেন কি না, তার ওপর নজরদারি রাখা হবে। কেউ আইন ভাঙলে নেওয়া হবে কড়া ব্যবস্থা। কলকাতার বিভিন্ন রাস্তার সংযোগস্থলে চলবে নাকা চেকিং। থাকবে পুলিশ পিকেটিংও। 

লকডাউনের আওতা থেকে বাদ থাকবে অ্যাম্বুল্যান্স–সহ জরুরি পরিষেবাগুলি। লালবাজারের কন্ট্রোল রুম থেকে চলবে টানা নজরদারি।
এদিন সকাল থেকেই কলকাতা–সহ রাজ্যের বিভিন্ন জায়গার জনবহুল এলাকা, বাজারগুলিতে মাইকে প্রচার চালায় পুলিশ। কলকাতার পাশাপাশি দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলির পুলিশ কমিশনারেট এলাকাগুলিতেও কড়া নজরদারি চলবে। টহল ও নজরদারি চলবে রাজ্যের অন্য জেলাগুলিতেও।‌‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top