দীপেন গুপ্ত, রঘুনাথপুর: মাস খানেক আগেই ছুটি নিয়ে বাড়ি এসেছিলেন। তবে কম দিনের ছুটি থাকায় বাবা, মাকে বলে গিয়েছিলেন এবার একটু বেশি দিনের ছুটি নিয়ে আসবেন। কিন্তু সেই ছুটি এমন হবে তা স্বপ্নেও ভাবতে পারেননি কেউ। মঙ্গলবার ছত্তিশগড়ে মাওবাদীদের গুলিতে শহিদ হন পুরুলিয়ার রঘুনাথপুর থানার লাছিয়া গ্রামের যুবক সিআরপিএফের ২০৮ কোবরাবাহিনীর কমান্ডো কানাইলাল মাজি (২৭)।
চলতি বছরের ১৭ জানুয়ারি বাড়ি এসেছিলেন তিনি। পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে খুব অল্প সময়ের জন্য বাড়ি এসেছিলেন। মঙ্গলবার ছত্তিশগড়ে মাওবাদী হামলায় শহিদ হন কানাইলাল ও তাঁর এক সহকর্মী। পুরুলিয়ায় লছিয়া গ্রামে কানাইয়ের মৃত্যুসংবাদ পৌঁছোতে কান্নায় ভেঙে পড়েন পরিবারের সদস্যরা। স্বামী হারানোর খবর শুনে মাঝে–মধ্যেই জ্ঞান হারাচ্ছেন তাঁর স্ত্রী রিয়া মাজি। ছোট একটি এক মাসের ও একটি আড়াই বছরের কন্যাসন্তানকে কীভাবে মানুষ করবেন, তা বলতে বলতে জ্ঞান হারাচ্ছেন। তিনি বলেন, ‘‌দুই মেয়েকে নিয়ে কত স্বপ্ন দেখত ওর বাবা। এবার আমি কীভাবে এই মেয়েদের মানুষ করব?‌‌ মঙ্গলবারও কথা বলেন তিনি। এক সহ–কর্মীর কাছ থেকে খবর আসে কানাইলালের গুলি লেগেছে। প্রথমে ভেবেছিলাম সামান্য আঘাত লেগেছে হয়তো। কিন্তু এভাবে খবর আসবে তা ভাবিনি।’‌ 
পরিবার সূত্রে জানা গেছে, কোবরাবাহিনীতে কানাইলাল যোগ দেন ২০১৪ সালে। কানাইয়ের বাবা দিলীপ মাজি চাষবাস করেন। মা মিনাদেবী গৃহবধূ। ওই দম্পতির একমাত্র সন্তান ছিলেন কানাই। ২০১৪ সালে সিআরপিএফের চাকরিতে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। চার বছর আগে বিয়ে করেন। দুই কন্যাসন্তান রয়েছে তাঁর। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাতে তঁার দেহ রাঁচি হয়ে বাড়িতে আনা হবে।‌

জনপ্রিয়

Back To Top