দীপঙ্কর নন্দী: এবার রাখিবন্ধন উৎসবের দিন মাস্ক বিতরণ হবে।
৩ আগস্ট, সোমবার রাখিবন্ধন উৎসব। ২০১১ সালে তৃণমূল ক্ষমতায় আসার পর, প্রতি বছর রাজ্য সরকারের ক্রীড়া ও যুবকল্যাণ দপ্তরের উদ্যোগে মেট্রো চ্যানেলে মঞ্চ বেঁধে রাখিবন্ধন উৎসব পালন করা হয়। থাকেন সংশ্লিষ্ট দপ্তরের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস–সহ অন্য নেতৃবৃন্দ। এ বছরের পরিস্থিতি অন্যরকম। লকডাউন চলছে। করোনার মতো অতিমারী রোগের সঙ্গে লড়াই করতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি এই রোগ প্রতিরোধ করতে ইতিমধ্যেই বেশ কিছু উদ্যোগ নিয়েছেন। এ বছর মেট্রো চ্যানেলে রাখি উৎসব হচ্ছে না। কলকাতা পুরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে রাখিবন্ধন উৎসবকে প্রতীকী উৎসব হিসেবে উদ্‌যাপন করা হবে। যুবকল্যাণ ও ক্রীড়া দপ্তর এবং কলকাতা পুরসভার পক্ষ থেকে সমস্ত ওয়ার্ডে একটি সার্কুলার দেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, ৩ কোটি মাস্ক রাজ্য সরকার তৈরি করতে দিয়েছে। এই মাস্ক সকলকে, ছাত্র–যুবদের হাতেও তুলে দেওয়া হবে। মাস্কের ওপর লেখা হয়েছে— ‘‌বাংলা আমার মা’।‌ নীচে লেখা ‘‌পশ্চিমবঙ্গ সরকার’‌।
মেট্রো চ্যানলের পরিবর্তে অনুষ্ঠান হবে নেতাজি ইনডোরে। মাস্ক বিতরণ হবে। এদিনটিকে সাংস্কৃতিক দিবস হিসেবে উদ্‌যাপন করতে হবে। প্রত্যেক ওয়ার্ডে ১,০০০টি করে মাস্ক দেওয়া হয়েছে। ওয়ার্ডের দায়িত্বে যাঁরা আছেন, তাঁরা সোমবার এই মাস্ক বিতরণ করবেন। এই উপলক্ষে প্রতিটি ওয়ার্ডে যে অনুষ্ঠান হবে সেখানে ৫০ জনের বেশি মানুষের সমাবেশ করা যাবে না। শ্রোতা, দর্শক এবং অংশগ্রহণকারীদের মাস্ক পরে থাকা বাধ্যতামূলক। রাখতে হবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার। মাস্ক বিতরণের পাশাপাশি সকলকে মিষ্টি বিতরণের ব্যবস্থা করতে হবে। ছাত্র–যুবদের মাস্ক দিতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে এই সাংস্কৃতিক দিবস পালন করতে হবে। মঞ্চের পেছনে ফ্লেক্সে নির্দেশিকাগুলি লেখা থাকবে। প্যান্ডেলে রবীন্দ্রনাথ ও নজরুলের একটি করে প্রতিকৃতি রাখতে বলা হয়েছে।
নেতাজি ইনডোরের অনুষ্ঠান শুরু সকাল ১১টায়। থাকবেন অরূপ বিশ্বাস, কলকাতা পুরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর প্রধান ও মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম–সহ অন্য নেত্রীবৃন্দ। এখানেও স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুষ্ঠান পালন করা হবে। ইনডোরে কয়েকজন শিল্পীও থাকবেন। হবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

জনপ্রিয়

Back To Top