আজকালের প্রতিবেদন‌- মেদিনীপুরের শালবনিতে ১০ মেগাওয়াটের একটি সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র গড়ে তুলবে ‌রাজ্য সরকার। সোমবার নবান্নে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তরের রাষ্ট্রমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। ছিলেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকও। রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন সৌরবিজ্ঞানী ড.‌ শান্তিপদ গণচৌধুরি। তিনি বলেন, আমাদের রাজ্যে এখন কমবেশি ১০০ মেগাওয়াট সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদন হয়। পুরোটাই গ্রিডে চলে যায়। জাতীয় সৌর মিশনের লক্ষ্য, ২০২২ সালের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে এই উৎপাদন বাড়িয়ে ২ হাজার মেগাওয়াটে নিয়ে যাওয়া। কারণ, সৌরবিদ্যুৎ পরিবেশবান্ধব, দূষণমুক্ত। আমাদের রাজ্যে যে সব বিদ্যুৎকেন্দ্র রয়েছে, সেগুলিতে কয়লার মাধ্যমে উৎপাদন হয়। ফলে সৌরবিদ্যুৎ আমাদের রাজ্যে খুবই প্রয়োজনীয়। রাজ্য সরকারের কাছে শান্তিপদবাবুর অনুরোধ, বাড়িতে সৌরবিদ্যুৎ ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হোক। অফিস–কাছারি থেকে সর্বত্র যদি বেশি মাত্রায় সৌরবিদ্যুৎ ব্যবহার করা যায়, তাহলে সরকারের আর্থিক সাশ্রয় হবে। তিনি বলেন, উত্তর দিনাজপুরে ১০ মেগাওয়াট, সাঁওতালডিহিতে ১০ মেগাওয়াট, দমদম বিমানবন্দরেও সৌরবিদ্যুৎ ব্যবহার করা হয়। এছাড়া বিভিন্ন স্কুল, কলেজেও এই বিদ্যুৎ ব্যবহার করা হচ্ছে।‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top