দিলীপ ঘোষের সঙ্গে একই মঞ্চে বিচারপতি কৌশিক চন্দ, নন্দীগ্রাম মামলা অন্য বেঞ্চে পাঠানোর দাবি

আজকাল ওয়েবডেস্ক: নন্দীগ্রামে ভোটের ফল নিয়ে হাইকোর্টে তৃণমূল। আর সেই মামলা গিয়েছে বিচারপতি কৌশিক চন্দের সিঙ্গল বেঞ্চে। আর তা নিয়ে শুরু হল বিতর্ক। কলকাতা হাইকোর্টের আইনজীবীদের একাংশের দাবি, বিচারপতি কৌশিক চন্দ ‘বিজেপির সক্রিয় সদস্য’ ছিলেন।  আর এই ধরনের গুরুত্বপূর্ণ মামলা তাঁর এজলাসে কেন গেল তা নিয়ে হাইকোর্টে বিক্ষোভ দেখালেন আইনজীবীদের একাংশ। মুখে কালো মাস্ক হাতে পোস্টার নিয়ে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা। যদিও আজ এই মামলার শুনানি হয়নি। বিচারপতি জানিয়েছেন, মামলাকারীকে আদালতে উপস্থিত থাকতে হবে। বিচারপতি বলেন, মামলাটির শুনানি আগামী বৃহস্পতিবার হবে।

বিক্ষোভকারী আইনজীবীদের পক্ষে অচিন্ত্য কুমার বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, কৌশিক চন্দ একসময় বিজেপির সক্রিয় সদস্য ছিলেন। আর এই ধরনের মামলা তাঁর বেঞ্চে গেলে বিচার ব্যবস্থা নিয়ে সাধারণ মানুষের মনে প্রশ্ন উঠতে পারে। আর আমাদের দাবি অন্য বেঞ্চে মামলা হোক। 

প্রসঙ্গত, মমতা ব্যানার্জির ইমামভাতা ঘোষণা করার পর যে মামলা হয়েছিল সেখানে বিজেপির তরফে প্রধান আইনজীবী ছিলেন এস কে কাপুর, জুনিয়র ছিলেন কৌশিক চন্দ। অন্যদিকে, অমিত শাহের একটি সভায় ধর্মতলার ভিক্টোরিয়া অনুমতি না দেওয়ায় হাইকোর্টে মামলা দায়ের করা হয়। সেই মামলাতে আইনজীবী হিসেবে লড়েছিলেন কৌশিক চন্দ। দু'টি মামলাতেই জয় পেয়েছিল বিজেপি। ২০১৪ সালে মোদি সরকার ক্ষমতায় আসার পর কেন্দ্রীয় সরকারের আইনজীবীদের প্যানেলে তাঁর নাম উঠেছিল বলে খবর।

প্রবীণ রাজনীতিক তথা আইনজীবী অরুণাভ ঘোষ বিচারপতি কৌশিক চন্দ্র প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমি যতদূর জানি, উনি কোনও দিনই বিজেপির সদস্য ছিলেন না। তবে বিজেপির হয়ে কিছু মামলা লড়েছেন। তবে তা থেকে কি প্রমাণিত হয় তিনি বিজেপি করেন?’

এদিকে বিজেপির লিগাল সেলের একটি মিটিংয়ে দিলীপ ঘোষের পাশে বসে থাকতে দেখা যায় কৌশিক চন্দকে। আর সেই ছবি পোস্ট করে টুইট করেছেন তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুনাল ঘোষ। ওই দুটি ছবি পোস্ট করে তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও'ব্রায়েন বলেন, ‘দিলীপ ঘোষের সভায় ইনি কে? ইনি কি কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি কৌশিক চন্দ?’

আর এই নিয়ে শুরু হল জোর চর্চা। এরপর বিচারপতি কৌশিক চন্দের এজলাসে এই মামলার শুনানি হয় কিনা তাই দেখার। আর যদি হয়েও থাকে সে ক্ষেত্রে তৃণমূল তাদের পছন্দ মতো রায় না পেলে সেক্ষেত্রে ডিভিশন বেঞ্চে যেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।