মিল্টন সেন, হুগলি: দেশ জুড়ে আর্থিক মন্দার জন্যে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকেই দায়ী করলেন জগদ্‌গুরু শঙ্করাচার্য স্বরূপানন্দ সরস্বতী মহারাজ। তিনি বলেছেন, ‘‌নোটবন্দি, জিএসটি–র ভাবনাতেই ভুল ছিল। এখন সেই ভুলের মাশুল গুনছে দেশবাসী।’‌ রবিবার কোন্নগরের রাজ রাজেশ্বরী মন্দিরে এক ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে দ্বারকার সারদা মঠ এবং বদ্রীনাথের যোশিমঠের শঙ্করাচার্য মহারাজ জানিয়েছেন, বিষয়টা নিয়ে তিনি প্রথম থেকেই চিন্তিত ছিলেন। নোটবন্দি বা জিএসটি যে হয়েছে তার ভাবনায় ভুল ছিল। রাতারাতি ৫০০ এবং ১০০০–এর নোট বাতিল করে দেওয়া হল। পরিণতি হল ভয়ঙ্কর। নোটের প্রতি মানুষের বিশ্বাসটাই উঠে গেল। অন্যদিকে, মানুষের মনে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে, ব্যাঙ্কে টাকা জমা করলে সেই টাকা পাওয়া যাবে কিনা তা নিয়ে।
হিন্দি ভাষা প্রচলন প্রসঙ্গেও বিরূপ প্রতিক্রিয়া শঙ্করাচার্যের। তিনি মনে করেন, দেশের সমস্ত ভাষাই থাকুক। কিন্তু একটা ‘‌কমন’‌ ভাষা যেটা হিন্দি, সেটা থাকা উচিত। তবে তার অর্থ এই নয় যে, অন্য ভাষা ছেড়ে মানুষকে হিন্দি ভাষাকে আপন করে নিতে হবে। এনআরসি নিয়ে তিনি বলেছেন, বিজেপি ঠিক কী ভুল করেছে তা তিনি জানেন না। তবে ভারতের যত জনসংখ্যা তার থেকে বেশি জনসংখ্যার ভার ভারত নিতে পারবে না। তাই যারা ভারতের নাগরিক নন তাদের চলে যাওয়াই উচিত বলেই তিনি মনে করেন। তিনি  জানান, এখন ইংরেজিকে একটা মাধ্যম বানানো হয়েছে। এখনও সুপ্রিম কোর্টে ইংরেজি ভাষার ব্যবহার হয়। দেশের বিভিন্ন প্রদেশে মানুষ ইংরেজিতে কথা বলে। আগে সেই জায়গায় ইংরেজির পরিবর্তে হিন্দি ভাষা চালু করা দরকার। আগে মহাত্মা গান্ধী, সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল এই মতই দিয়েছিলেন।

জনপ্রিয়

Back To Top