Municipal Election: ‌একই ওয়ার্ডে দুই দলের হয়ে দাঁড়িয়ে পড়লেন একই নাম, পদবি ওয়ালা ব্যক্তি

মিল্টন সেন, হুগলি:‌ এক ওয়ার্ডে একই নাম।

পদবিও এক। অথচ দুই ভিন্ন রাজনৈতিক দলের দুই প্রার্থী। পাশাপাশি ঝুলছে শাসক এবং বিরোধী দুই দলের পোস্টার, ঝুলছে ব্যানার। একই নামে দুই দলের দেওয়াল লিখন, চরম বিভ্রান্তি বাঁশবেড়িয়ায়। আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি ভোট বাঁশবেড়িয়া পুরসভার ২২ ওয়ার্ডে। হাতে সময় খুব কম, সমস্ত রাজনৈতিক দলই ঝাঁপিয়ে পড়েছে রাজনীতির ময়দানে। ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে চলছে প্রচার। বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে পুরসভার ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্ধী দুই প্রার্থীকে কেন্দ্র করে। ওই ওয়ার্ডে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থীর নাম বিশ্বজিৎ দাস। আবার বিজেপি প্রার্থীরাও নাম বিশ্বজিৎ দাস। ফলে নির্বাচনী ময়দানে শাসক এবং বিরোধী দুই দলের তরফেই প্রচারে ব্যক্তি আলাদা হলেও ওই একই নামের প্রার্থীর প্রচারে সরগরম ওয়ার্ড। কখনও আবার ভোট প্রচারে বেড়িয়ে দু’‌জনেই মুখোমুখি হয়ে পড়ছেন। কখনও আবার প্রচারে গিয়ে দু’‌জনে একই বাড়িতে ঢুকে পরছেন। একইসঙ্গে দু’‌জন ভোটারদের ভিন্ন প্রতীকে ভোট দেওয়ার আবেদনও জানাচ্ছেন। এদিকে দুই প্রার্থীর নাম এবং পদবি এক হওয়ায় বিভ্রান্ত হয়ে পড়ছেন ভোটাররা। তবে দুই প্রার্থীই মনে করেন, নির্বাচনে প্রার্থীর নামের থেকেও দলের প্রতীক বড়। তাঁরা আশাবাদী ভোটাররা প্রতীক চিহ্ন দেখেই ভোট দেবেন। তৃণমূলের প্রার্থী বিশ্বজিৎ দাস গতবার ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ছিলেন। সেখানে বিজেপি প্রার্থী বিশ্বজিৎ দাসকেই পরাজিত করেছিলেন তিনি। তাই এবারও লড়াই সেই বিশ্বজিৎ এর সঙ্গেই। তাই জয়ের ব্যাপারে নিশ্চিত তৃণমূলের বিশ্বজিৎ। আর বিজেপির বিশ্বজিৎ মনে করেন মানুষ ভয় ভীতিকে কাটিয়ে ভোট দিতে পারলে তিনি জয়ী হবেন। 

আরও পড়ুন:‌ এই একটি শর্ত পূরণ হলেই বাইডেন–পুটিন মুখোমুখি আলোচনা সম্ভব!‌ 
 

আকর্ষণীয় খবর