গৌতম মণ্ডল, পাথরপ্রতিমা, ৫ ফেব্রুয়ারি- প্রতিবেশী এক নাবালিকা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে দীর্ঘদিন গা–‌ঢাকা দেওয়া অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তার করল পুলিস। অভিযুক্ত সঞ্জয় দাস পাথরপ্রতিমার শ্রীপতিনগরের বাসিন্দা। ধৃতকে কাকদ্বীপ আদালতে পেশ করা হলে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। গত বছর আগস্ট মাসে কোচিং সেন্টার থেকে পিকনিকে গিয়ে ধর্ষিতা হয় দশম শ্রেণির ছাত্রী। ভয়ে ও সঙ্কোচে চেপে গিয়েছিল সেদিনের ঘটনা। কিন্তু পরে মাতৃত্বের লক্ষণ ফুটে ওঠে ওই ছাত্রীর মধ্যে। অবশেষে ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনা জানায় পরিবারকে। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর ছাত্রীর পরিবার থানায় অভিযোগ দায়ের করতে যায়। কিন্তু পাথরপ্রতিমা থানা অভিযোগ নিতে অস্বীকার করে বলে অভিযোগ। তখন অসহায় ছাত্রীর পরিবারের পাশে দাঁড়ায় মানবাধিকার সংগঠন এপিডিআর। গত ১২ জানুয়ারি সংগঠনের মাধ্যমে পাথরপ্রতিমা থানায় ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের হয়। এরপর আদালতের নির্দেশে ছাত্রীকে জেলার একটি হোমে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। গত ১৮ জানুয়ারি এক কন্যাসন্তানের জন্ম দেয় ওই ছাত্রী। অভিযুক্ত যুবক সঞ্জয় দাস দীর্ঘদিন ধরে বেপাত্তা ছিল। পাথরপ্রতিমার পশ্চিম শ্রীপতিনগরের অভাবী পরিবার। পরিবারের কর্তা বেশ কয়েক বছর আগে মারা গিয়েছেন।                 

অভিযুক্ত সঞ্জয় দাস। ছবি:‌ প্রতিবেদক

জনপ্রিয়

Back To Top