আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌‘‌ইস্তফা’ নয়। ‘‌অপসারণ’ করা হয়েছে রাজীব ব্যানার্জিকে। অন্তত নবান্নের সরকারি তাই লেখা থাকবে, সূত্রের দাবি। নবান্ন সূত্রে খবর, শুক্রবার রাজীব যে ইস্তফাপত্র লিখে পাঠিয়েছেন, তাতে কিছু ‘‌পদ্ধতিগত ত্রুটি’‌, যে কারণে তাঁর ইস্তফা গ্রহণ না করে সরাসরি অপসারণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। যদিও এ বিষয়ে আর কোনও বিতর্ক না রাজ্যের প্রাক্তন বনমন্ত্রী। 
জানা গিয়েছে, এদিন সকালে মমতার কালীঘাটের বাড়ির কাছে যে মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর রয়েছে, সেখানে যান রাজীব ব্যানার্জি। এক কর্মীর হাতে ওই ইস্তফাপত্র দিয়ে চলে আসেন। পরে রাজভবনেও ইস্তফাপত্র দিতে যান। রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা না করেই ফিরে আসতে চাইছেন তিনি, কিন্তু তাঁকে জানানো হয়, রাজ্যপাল তাঁর সঙ্গে দেখা করতে চান। তার পরেই তিনি রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করে কথা বলেন।
নবান্নের একটি সূত্র জানিয়েছে, রাজভবন থেকে বেরিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে রাজীব যেভাবে ‘‌অসৌজন্য’‌‌–এর অভিযোগ তোলেন, তাতেই রীতিমতো ক্ষুব্ধ নবান্ন। যার জেরেই তাঁকে মন্ত্রিসভা থেকে ‘‌অপসারণ’ করা হয়েছে বলে শোনা গিয়েছে। তাঁকে মন্ত্রিসভা থেকে সরিয়ে দেওয়ার জন্য রাজ্যপালের কাছেও অনুরোধ করেন মমতা ব্যানার্জি। সেই অনুরোধ মেনেও নেন রাজ্যপাল।‌ ‌

জনপ্রিয়

Back To Top